গাঁধী নয়, রাহুলের পদবী হওয়া উচিক জিন্নাহ। বীর সাভারকরকে নিয়ে রাহুল গাঁধীর করা মন্তব্যের জবাবে পাল্টা এমনই কটাক্ষ ছুড়ে দিল বিজেপি। তাদের দাবি, প্রাক্তন কংগ্রেস সভাপতি যেভাবে মুসলিম তোষণের রাজনীতি করছেন তাতে তাঁর সঠিক নাম হওয়া উচিত 'রাহুল জিন্নাহ'। 

এ দিন রামলীলা ময়জানে কংগ্রেসের ভারত বাঁচাও সভার মঞ্চ থেকে রাহুল গাঁধী ফের একবার জানিয়ে দেন, 'রেপ ইন ইন্ডিয়া' মন্তব্যের জন্য তিনি ক্ষমা চাইবেন না। এই প্রসঙ্গেই বীর সাভারকরের নাম টেনে আনেন কংগ্রেস সাংসদ। রাহুল বলেন, তিনি রাহুল গাঁধী, রাহুল সাভারকর নন। সাভারকরের মতো সত্যি বলার জন্য কখনওই ক্ষমা চাইবেন না তিনি। 

হিন্দুত্ববাদী নেতা হিসেবে বীর সাভারকরকে নিয়ে আলাদা আবেগ রয়েছে বিজেপি-র। কিন্তু তাঁর সমালোচকরা বলেন, জেল থেকে ছাড়া পাওয়ার জন্য ব্রিটিশদের কাছে ক্ষমা চেয়েছিলেন সাভারকর। 

রাহুল গাঁধীর এ দিনের মন্তব্যের জবাব দিতে গিয়ে বিজেপি মুখপাত্র জি ভি এল নরসিমহা রাও বলেন, 'আপনার আদর্শ নাম রাহুল জিন্নাহ। মুসলিমদের প্রতি আপনার মনোভাব এবং তোষণের রাজনীতির জন্য আপনি জিন্নাহ-র উত্তরসূরি হতে পারেন, সাভারকরের নয়।'

আরও পড়ুন- 'লোগো কো লড়বাও অউর অসলি মুদ্দে ছুপাও', মোদী-শাহকে পাল্টা সনিয়া- রাহুলের

আর এক বিজেপি নেতা সম্বিত পাত্র বলেন, রাহুল গাঁধী কখনওই রাহুল সাভারকর হতে পারবেন না কারণ সাভারকর দেশাত্মবোধ, সাহসিকতা আর আত্মত্যাগের প্রতিমূর্তি ছিলেন। কিন্তু রাহুল গাঁধী এমন একজন নেতা যিনি নাগরিকত্ব বিল, ৩৭০ ধারা, সার্জিক্যাল স্ট্রাইক- এর মতো ইস্যুতে পাকিস্তানের সুরে কথা বলেন। 

বীর সাভারকরকে নিয়ে কংগ্রেস সাংসদের মন্তব্যকে ভালভাবে নেয়নি মহারাষ্ট্রে কংগ্রেসের জোটসঙ্গী শিবসেনাও। দলের সাংসদ সঞ্জয় রাউত টুইটারে বার্তা দিয়ে বলেন, কোনওভাবেই যেন সাভারকরকে অপমান করা না হয়।