গুজরাতে পঙ্গপালের হানা। তাও আবার প্রতিবেশী রাষ্ট্র পাকিস্তানের পঙ্গপাল। আর সেই পঙ্গপালের দলের দাপটে গত কয়েতদিনে  ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ফসল। যার মধ্যে রয়েছে  আলু, গম, জিরা, তুলো এবং শর্ষে। 

মেহসানা, কছ, বানসকন্ঠা, সবরকন্ঠা এবং পাটন এলাকায় সবচেয়ে বেশি ফসলের ক্ষতি হয়েছে। পরিস্থিতি সামলাতে ড্রোন দিয়ে খেতে স্প্রে দিওয়ার কাজ শুরু করেছে গুজরাত সরকার। 

আরও পড়ুন: পড়তে চান 'ভূত বিদ্যা', সুযোগ দিচ্ছে বেনারস হিন্দু বিশ্ববিদ্যালয়

পরিস্থিতি সামলাতে ময়দানে নেমেছে কেন্দ্রীয় সরকারও। প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে ১১টি দলকে পাঠান হয়েছে গুজরাতে। 

আরও পড়ুন: কাজাখস্তানে ভয়াবহ দুর্ঘটনা, বিমানবন্দরের কাছেই শতাধিক যাত্রী নিয়ে ভেঙে পড়ল বিমান

পরিস্থিতি সামল দিতে কেন্দ্রীয় দল কাজ শুরু করেছে বলে জানিয়েছেন গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রুপানি। চলতি মাসে এটা পাকিস্তান থেকে আসা পঙ্গপাল দলের দ্বিতীয় আক্রমণ বলে জানাচ্ছেন উপমুখ্যমন্ত্রী নীতিন প্যাটেল। 

এদিকে পঙ্গপাল দলের এই হানা নিয়ে ক্রমেই উত্তপ্ত হচ্ছে গুজরাতের রাজনীতি। সরকার পরিস্থিতি সামলাতে ব্যর্থ বলে সুর চড়াচ্ছে কংগ্রেস।