করোভাইরাসের সংক্রমিত হওয়ায় চিকিৎসা চলছিল দিল্লির এইমস হাসপাতালে। কিন্তু নিজে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন তা বোধহয় মেনে নিতে পরছিলেন না ৩৪ বছরের সাংবাদিক। এমইস হাসপাতালের জয়প্রকাশ নারায়ণ অ্যাপেক্স ট্রমা সেন্টারে ভর্তি ছিলেন তিনি। ট্রমা সেন্টারের চার তলা থেকে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন তিনি। তেমনই জানিয়েছে দিল্লির পুলিশ। 

দিল্লি পুলিশ জানিয়েছে গুরুতর জখম অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে করোনা আক্রান্ত সংবাদিককে। বর্তমানে তাঁর চিকিৎসা চলছে আইসিএইতে। তাঁর শরীরের বেশ কয়েকটি জায়গায় আঘাত রীতিমত গুরুতর বলেও জানিয়েছে পুলিশ। পা ভেঙে গেছে বলেও জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ায় সাংবাদিকের চিকিৎসার জন্য বিশেষ ব্যবস্থা করা হয়েছে বলেও হাসপাতাল সূত্রের খবর।  দিল্লি পুলিশ জানিয়েছে কী কারণে সাংবাদিক আত্মহত্যার চেষ্টা করলেন তা অবশ্যই খতিয়ে দেখা হবে। কিছুটা সুস্থ হলে আক্রান্তকেই জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলেই জানান হয়েছে প্রশাসনের তরফ থেকে। কর্মসূত্রে বাইরে বার হতে হয় সাংবাদিকদের। স্বাস্থ্যবিধি মেনে চললেও  মহামারির এই সংকটকালে ঝুঁকির প্রবণতাও বেশি থাকে। সবদিকই খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। 

পার্লারে গিয়েছিলেন নববধূর সাজে সাজ করতে, কিন্তু খুন হয়ে গেল কনে ...

গ্যালওয়ানে সেনা সরলেও উত্তেজেনা বাড়ছে দক্ষিণ চিন সাগরে, সামুদ্রিক মহড়া নিয়ে বেজিংকে হুঁশিয়ারি পেন্...  


গোটা দেশেই করোনাভাইরাসে আক্রান্তের ছবি রীতিমত উদ্বেগের। সোমবার স্বাস্থ্য মন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী আক্রান্তের সংখ্যা ৬লক্ষ ৯৭ হাজার ৪১৩। এখনও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ১৯ হাজারেরও বেশি মানুষে। বিশ্বের করোনাভাইরাসের আক্রান্ত দেশ গুলির ক্রম তালিকায় ভারতের স্থান  তৃতীয়। দিল্লিতেই পাল্লা দিয়ে বেড়েছে আক্রান্তের সংখ্যা। রাজধানীতে আক্রান্তের সংখ্যা ৯৯ হাজারেরও বেশি। এখনও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৩০৬৭ জনের। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রাজ্যগুলির মধ্যে এখনও পর্যন্ত শীর্ষে রয়েছে মহারাষ্ট্র। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে তামিলনাড়ু। আর তৃতীয় স্থানে দিল্লি। 

ভারতের ওপর চাপ বাড়াতে অন্য কৌশল বেজিং-এর, আচমাকাই ভূটানের বনভূমিতে ড্রাগনের নিঃশ্বাস