নির্দিষ্ট দিনেই হচ্ছে ইউপিএসসি সিভিল সার্ভিস প্রিলিমিনারি পরীক্ষা। শীর্ষ আদালত বুধবার পরীক্ষা পিছনোর আবেদন খারিজ করল। গত ৩১ মে হওয়ার কথা ছিল ইউপিএসসি প্রিলিমস। করোনা পরিস্থিতির জেরে সেই পরীক্ষার দিন পিছিয়ে নির্ধারিত করা হয় ৪ অক্টোবর। এই দিনও পিছিয়ে দেওয়ার আবেদন করা হলে সেই আবেদবন খারিজ করে দেয় শীর্ষ আদালত। 

২০ জন পরীক্ষার্থী এই আবেদন করেছিল। যা সম্প্রতি খারিজ হয়েছে। তবে শেষ বারের মত যারা পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগদ পাচ্ছে তাদের স্বার্থর কথা ভেবে কেন্দ্রকে বিবেচনা করতে নির্দেশ দিয়েছে শীর্ষ আদালত। করোনা পরিস্থিতকি, বন্যায় বিপর্যস্ত হওয়া দেশের বিভিন্ন অংশের কথা মাথায় রেখে ইউপিএসসি সিভিল সার্ভিস প্রিলিমিনারি পরীক্ষা দু-তিন মাস পিছিয়ে দেওয়ার আবেদন করে সেই পরীক্ষার্থীরা। 

সেই আবেদনের শুনানি ছিল বিচারপতি বিআর গাওয়াই, এএম খানভিলকর এবং কৃষ্ণা মুরারির বেঞ্চে। বিচারপতির কথায়, প্রতি বছরই পরিবেশগত কোনও কারণ থেকেই থাকে। সাধারণ ছাত্রছাত্রীদের পরীক্ষা দেওয়ার মত বিষয় ইউপিএসসি নয়। যার দরুণ যদি এই পরীক্ষা পিছনোর ব্যবস্থা করা হয় তাহলে ভবিষ্যতে গুরুতর সমস্যা দেখা দিতে পারে।  

পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষা পিছনোর আবেদনের বিরোধিতা করেছিল ইউপিএসসি। তাদের বক্তব্য অনুযায়ী, পরীক্ষা কেন্দ্র ও উপকেন্দ্রগুলিতে সমস্ত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা করা হয়েছে। সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে পরীক্ষা নেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে কেন্দ্রগুলিতে।