অযোধ্যা পুরুষোত্তম রামের জন্মবূমি। অন্তত এমনটাই বলা হয়েছে রামায়ণে। কিন্তু একুশ শতকে সেখানে আদৌ রাম রাজত্ব আছে কিনা তাই নিয়েই প্রশ্ন তুলে দিল সাম্প্রতিক এক ঘটনা।

লোকে বলছেন ধর্মনগরীতে চরম অধর্মের কাজ হয়েছে। অভিযোগ স্থানীয় এক যুবক ধর্ষণ করেছেন একটি গরুকে। জানা গিয়েছে ঘটনাটি ঘটেছে অযোধ্য়া কোতোয়ালির নয়াঘাট পুলিশ চৌকি এলাকায়। স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি সরযু নদীর তীরে হতভাগ্য গরুটি ঘাস খেতে গিয়েছিল। সেই সময়ই ওই বিকৃতমনা যুবক তার উপর চড়াও হয়। এরপরই গরুটির ডাকাডাকি শুনে স্থানীয় বাসিন্দারা জড়ো হয়ে যান। এই যুবককে হাতেনাতে ধরে ফেলেন তাঁরা। তারপর তুলে দেওয়া হয় পুলিশের হাতে।
আপাতত এই বিষয়ে তদন্ত চলছে। পুরো ঘটনাটি সিসিটিভি ক্যামেরায় ধরা পড়েছে বলে দাবি করা হচ্ছে। পুলিশ সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ খতিয়ে দেখছে।

তবে ঘটনার কথা জানাজানি হতেই তীব্র চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে উত্তরপ্রদেশে। মুখ্য়মন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ খোলাখুলিই নিজেকে গোরক্ষক বলে থাকেন। বিভিন্ন সময়ে গোরক্ষকদের সমর্থনে তিনি এগিয়েও এসেছেন। তাঁরই শাসনে এই ধরণের ঘটনা কীভাবে ঘটল সেটাই বিস্ময় জাগাচ্ছে সকলের মনে।

তবে ভারতের বুকে এই ধরণের বিকৃত লালসা চরিতার্থ করার ঘটনা এই প্রথম নয়। এর আগেও গবাদী পশু যৌন হেনস্থার শিকার হয়েছে এই দেশে। ২০১৮ সালেই আরেক বিজেপি শাসিত রাজ্য হরিয়ানার মেওয়াট জেলায় একটি ছাগলকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছিল। তার পরপরই গরুকে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠেছিল মধ্যপ্রদেশেও।