দিল্লি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে সাড়ে সাত লক্ষ সিগারেট স্টিক উদ্ধার করল শুল্ক দফতরের আধিকারিকরা। দুবাই থেকে এই বিপুল পরিমাণ সিগারেট আনা হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। ব্যাগের মধ্যে সিগারেটগুলিকে পাচারের চেষ্টা চলছিল। ইতিমধ্যে এই ঘটনায় ১৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: দেশের দুই মেট্রো শহর দিল্লি ও মুম্বইতে ক্রমে কমছে সংক্রমণ, পিছিয়ে নেই মোদীর আহমেদাবাদও

সিগারেট পাচারের অভিযোগে ধৃতদের সকলের বয়স ২৬ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে। গ্রেফতার হওয়া সকলেই ভারত থেকে দুবাইতে শ্রমিক হিসাবে কাজ করতে গিয়েছিল বলে জানা গিয়েছে। করোনা সংক্রমণের ফলে লকডাউনের কারণে দীর্ঘ সময়ে  দুবাইতে আটকে ছিল ধৃতরা। 

আরও পড়ুন: স্বদেশি করোনা প্রতিষেধক কোভ্যাক্সিনের ট্রায়াল শুরু এইমসে, প্রথম টিকা দিল্লির যুবককে

উদ্ধার হওয়া সিগারেটগুলির মূল্য ৬৬ লক্ষ টাকারও বেশি। শুল্ক দফতর মনে করছে ওই ১৩ জন ব্যক্তিকে দেশে ফেরার প্রলোভন দেখিয়ে সিগারেট পাচারের চেষ্টা চালান হয়েছিল। লকডাউনের কারণে দুবাইতে আটকে পড়া ওই ব্যক্তিদের বিনামূল্যে বিমানের টিকিট দিয়েছিল পাচারকারী দলটি। তার বদলে দুই তরফের মধ্যে সিগারেট পাচারের চুক্তি হয়েছিল। 

আরও পড়ুন: ভারতে মাত্র ৬৮ টাকায় মিলবে করোনার ওষুধ, ‘সিপলেঞ্জা’ নিয়ে আসছে দেশের বৃহত্তম ওষুধ সংস্থা

দুবাই থেকে বিমান দিল্লিতে নামতেই শুল্ক দফতরের সন্দেহ হওয়ায় তল্লাশি চালান হয়। সেই সময় এই বিপুল পরিমাণ সিগারেট উদ্ধার করে। কাদের নির্দেশে লক্ষ লক্ষ টাকার এই সিগারেট পাচার হচ্ছিল তা জানতে ধৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে পুলিশ।