যাদব সম্প্রদায়ের রোষের মুখে পড়েত হল এক নতুন বরকে। বিয়ে করতে যাওয়ার আগেই বড় বিপত্তির মুখোমুখি হতে হল। আক্রান্ত বর জানিয়েছেন, পারিবারিক প্রথা অনুযায়ী ঘোঁড়ায় চড়ে যাচ্ছিলেন বিয়ে করতে যাচ্ছিলেন। প্রথা অনুযায়ী গ্রামে প্রদর্শনের পর স্থানীয় একটি মন্দিরে পুজো দিয়ে যাওয়ার কথা ছিল। বর ও বরযাত্রী অনেকেই যাচ্ছিলেন সেই উদ্দেশ্যে। 

রাস্তাতেই বাধ সাধে স্থানীয় যাদব সম্প্রদায়। তথাকথিত সমাজে তারা উঁচ সম্প্রদায়ভুক্ত। আক্রান্ত রাজেশ অহিশ্বরের কথায় স্থানীয় যাদব সম্প্রদায়ের বেশ কয়েকজন সদস্য তাঁকে টেনে হিঁচড়ে ঘোড়া থেকে নামিয়ে দেয়।  ব্যাপক মারধর করে বলেও অভিযোগ ওঠে। রাজেশের কথায় ঘোড়ার লাগাম খুলে তাঁকে মারা হয়। পরে সেই লাগাম পরিয়ে রাজেশকে টেনে নিয়ে যাওয়া হয় বলে অভিযোগ। রাজেশের বাবা জানিয়েছেন যাদব সম্প্রদায়ের ৪ জন ছিল। যারা তাঁদের  ওপর সওয়ার হয়। পাশাপাশি অভিযুক্তরা  পুলিশের দ্বারস্থ  হুমকিও দেয়। প্রত্যক্ষদর্শীদের অভিযোগ স্থানীয় যাদব সম্প্রদায়ের লোকেরা তাঁদের ঘোড়ায় চড়ে মন্দিরে যেতে বাধা দিয়েছিল। রাজেশের পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছিল, এটি তাদের পরিবারে প্রাচিন রীতি। বিয়ে করতে যাওয়ার আগে ঘোড়ায় করেই তাঁরা মন্দিরে যান পুজো দিতে। কিন্তু তাঁদের কথা কেউ শোনেনি বলেও অভিযোগ। বরযাত্রীদের সঙ্গেও অশালীন ব্যবহার করা হয়েছিল বলে অভিযোগ। 

লাদাখ সংঘর্ষের দায় এখনও ভারতের ঘাড়ে চাপাতে ব্যস্ত চিন, সম্পূর্ণ অন্য রাস্তায় রাজনাথ ...

ভারতীয় সেনার অতর্কিত হামলায় ছত্রভঙ্গ চিনা সেনা, সরিয়ে নিল গ্যালওয়ানের বিতর্কিত তাবু ...

'জুম' থেকে 'টিকটক' ৫২টি চিনা অ্যাপে লুকিয়ে বিপদ, দাবি ভারতীয় গোয়েন্দাদের ...
গত সমবার এই ঘটনা ঘটেছে মধ্য়প্রদেশের ছাপড়ায়। ঘটনার তদন্তে নেমেছে সিতাই থানার পুলিশ। ইতিমধ্যেই গ্রেফতার করা হয়েছে ৪ জনকে। ধৃতরা হল বীজেন্দ্র যাদব, কৃষ্ণপাল যাদব, রাকেশ যাদব, মহীপাল যাদব। স্থানীয় সমাজ কর্মীর এই জাতীয় ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন। মানুষকে আরও সচেতন হতে হবে বলেও জোর দিয়েছেন তাঁরা।