দিন তিনেক আগে দিল্লির স্বাস্থ্যমন্ত্রী সত্যেন্দ্র জৈন-এর কোভিড-১৯ পরীক্ষার ফল ইতিবাচক এসেছিল। শুক্রবার তাঁর শারীরিক অবস্থার চরম অবনতি হয়েছে। এদিন দুপুরে তড়িঘড়ি তাঁকে ইন্টেনসিভ কেয়ার ইউনিট বা আইসিইউ-তে ভর্তি করতে হয়েছে। এদিকে অবস্থা উদ্বেগজনক, এই খবর পাওয়ার পরই তাঁর দ্রুত সুস্থতার জন্য প্রার্থনা করলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।

দিল্লির স্বাস্থ্যমন্ত্রী তথা আপনেতার চিকিৎসায় নিযুক্ত ডাক্তাররা জানিয়েছেন, এদিন সকাল থেকেই সত্যেন্দ্র জৈন-এর অবস্থার অবনতি হতে থাকে। দ্রুত তাঁর দেহে অক্সিজেনের মাত্রা কমে যাচ্ছিল। একইসঙ্গে নিউমোনিয়াও ধরা পড়েছে। এখন তাঁকে প্লাজমা থেরাপি দেওয়া হবে। গত বুধবার দিল্লির স্বাস্থ্যমন্ত্রীর করোনা পরীক্ষার ফল পজিটিভ বেরিয়েছিল। তাঁর সঙ্গে একইদিনে করোনা পজিটিভ হিসাবে সনাক্ত হয়েছিলেন আরেক আপ বিধায়ক অতীশি-ও।

৫৫ বছর বয়সী সত্যেন্দ্র জৈন ভর্তি :ছিলেন রাজীব গান্ধী সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে। সেখান থেকে এদিন তাঁকে সাকেত হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়েছে। গত রবিবার তিনি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, দিল্লির লেফটেন্যান্ট গভর্নর অনিল বৈজাল, উপ-মুখ্যমন্ত্রী মণীশ সিসোদিয়া, কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধন এবং দিল্লি সরকার ও কেন্দ্রের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে দিল্লির করোনভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে এক গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে অংশ নিয়েছিলেন।

এদিন সত্যেন্দ্র জৈনের স্বাস্থ্য অবনতির কথা ছড়িয়ে পড়তেই তাঁর দ্রুত আরোগ্য কামনা করে একটি টুইট করেন, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি লেখেন, 'কোভিড -১৯ সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াই করা দিল্লির স্বাস্থ্যমন্ত্রী শ্রী সত্যেন্দ্র জৈনের দ্রুত আরোগ্যের জন্য প্রার্থনা করছি।' এমনিতে বিজেপি এবং আম আদমি পার্টির মধ্যে রাজনৈতিক বিরোধ কম নয়। কিন্তু, কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীর এই টুইট বার্তা করোনা যুদ্ধে ভারতের ঐক্যের ছবিটাই তুলে ধরেছে বলে মনে করছে সংশ্লিষ্ট মহল।