মায়ের জন্য ছেলে টান থাকবে এটাই তো স্বাভাবিক। কিন্তু, মায়ের জন্য করেও ছেলের ঠাঁই হল শ্রীঘরে। কিন্তু কী এমন করেছে ছেলে? জানা গিয়েছে নয়া-দিল্লি- হাবিবগঞ্জ শতাব্দী এক্সপ্রেস ট্রেনে প্রাতঃরাশ সারছিলেন মা। খাওয়া তখনও শেষ হয়নি কিন্তু তার আগেই মথুরা জংশন ছেড়ে চলে যাচ্ছিল ট্রেন। আর সেই কারণেই ট্রেন থামাতে চেন টানেন ছেলে। 

আর এই ঘটনার জেরেই পুলিশ গ্রেফতার করেছে দিল্লি নিবাসী বছর ৩২-এর মণীশ অরোরাকে। পূর্ব দিল্লির যমুনা বিহারের বাসিন্দা মণীশ তাঁর মা এবং আরও দুজন আত্মীয়ের নয়া-দিল্লি- হাবিবগঞ্জ শতাব্দী এক্সপ্রেস  ট্রেনে সি৮ কোচের ৫২, ৫৩ এবং ৫৬ বার্থ কনফার্ম ছিল তাঁদের। 

মুম্বইতে প্রবল বর্ষণের জের, বাতিল হাওড়া-শালিমার-সহ একগুচ্ছ ট্রেন

ভারী বর্ষণে দেওয়াল ধসে মুম্বইতে মৃত অন্তত ২০, ছুটি ঘোষণা সরকারের

ঘটনার পর পুলিশ গ্রেফতার করেন ওই ব্যক্তিকে। চেন টানার কারণ জানতে চাইলে পুলিশকে তিনি জানান, তাঁরা গন্তব্যস্থল মথুরা জংশনে পৌঁছে যাওয়ায় সময়ে তাঁর মায়ের প্রাতঃরাশ শেষ হয়নি। আর চলন্ত ট্রেন থেকে মা  বং বাকি আত্মীয়দের সঙ্গে নিয়ে তিনি নামতে পারবেন না বলেই ট্রেনের চেন টানেন তিনি। আর সেই কারণে রেলওয়ে আইন ১৪১ ধারা অনুযায়ী অকারণে চেন টানার অভিযোগে  যদিও এরপর অবশ্য তিনি জামিনে ছাড়া পেয়ে যান। তবে তাঁকে রেলের ম্যাজিস্ট্রের কাছে হাজিরা দেওয়ার জন্যও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।