শনিবার দিল্লিতে চলছে ভোটগ্রহণ। ঠিক তার আগের রাতেই উত্তর-পশ্চিম দিল্লিতে একজন মহিলা পুলিশ অফিসার-কে গুলি করে হত্যা করা হল। জানা গিয়েছে শুক্রবার রাত সাড়ে ন'টা নাগাদ ২৬ বছরের সাব-ইন্সপেক্টর প্রীতি আহলাওয়াত দিল্লির রোহিনী এলাকার মেট্রো স্টেশন থেকে হেঁটে বাড়ি ফিরছিলেন। সেই সময়ই তাঁর উপর তিনবার গুলি করা হয় বলে অভিযোগ। শনিবার দিল্লির পতপরগঞ্জ কেন্দ্রে ভোটের সময় আইনশৃঙ্খলা রক্ষার দায়িত্ব ছিল তাঁর।

তবে এর পিছনে কোনও রাজনৈতিক কারণ নেই বলেই দাবি করেছে পুলিশ। তারা জানিয়েছে, এক প্রেমের সম্পর্কের জেরেই প্রীতি আহলাওয়াত-কে। রতপরগঞ্জ থানায় নিযুক্ত হলেও প্রীতির আসল বাড়ি হরিয়ানার সোনিপতে। দীপাংশু রাঠি নামে সোনিপতের এক সাবইন্সপেক্টর প্রেমে পড়েছিল প্রীতির। সে আর প্রীতি ২০১৮ সালের ব্যাচমেট। দীপাংশুর প্রেমের আহ্বানে অবশ্য সাড়া দেয়নি প্রীতি।

পুলিশের দাবি, এরপরই শুক্রবার রাতে কাজ শেষ করে বাড়ি ফেরার পথে প্রীতির উপর চড়াও হয় সাবইন্সপেক্টর দীপাংশু। একেবারে পয়েন্ট ব্ল্যাঙ্ক রেঞ্জ থেকে পরপর তিনটি গুলি করা হয় প্রীতিকে। সঙ্গেসঙ্গেই মৃত্যু হয় এই তরুণী সাবইন্সপেক্টরের। পরে সোনিপতে ফিরে গিয়ে দীপাংশুও আত্মহত্যা করেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। প্রীতির মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। নিয়ে যায়। শ্যুটারকে সনাক্ত করতে এলাকার সিসিটিভি ফুটেজ-ও সংগ্রহ করা হয়েছে।

দিল্লির বিধানসভা নির্বাচনের ঠিক আগের রাতে রোহিনী মেট্রো স্টেশনের কাছের এই গুলিচালনার ঘটনাকে কেন্দ্র করে সাময়িকভাবে উত্তেজনা ছড়ায় এলাকায়। এদিন দিল্লির ৭০ টি বিধানসভা আসনের নির্বাচনের জন্য জাতীয় রাজধানী জুড়ে কঠোর সুরক্ষার ব্যবস্থা করা হয়েছে। জায়গায় জায়গায় পুলিশ ও আধাসামরিক বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। বিভিন্ন জায়গায় রাস্তায় ব্যারিকেড বসিয়ে যানবাহন থামিয়ে চেক করা হচ্ছে।