রাজ্যসভায় তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ ডেরেক ও'ব্রায়নসহ বিরোধীদের আচরণের তীব্র নিন্দা করেছেন বিজেপির একাধিক সাংসদ। দলের পক্ষ থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি বার্তা দিয়ে বলা হয়েছে এই জাতীয় ঘটনা নিন্দনীয়। পাশাপাশি বলা হয়েছে রাজ্যসভায় কৃষি বিলকে আটকাতে না পেরে দলের বিরোধী সাংসদরা রীতিমত হতাশ হয়ে পড়েছেন। আর সেই কারণেই ওয়েলে নেমে বিক্ষোভ দেখিয়েছেন তাঁরা। 


বিজেপি নেতা মুক্তার আব্বাস নাভকি বলেছেন কংগ্রেস ও তার বন্ধুরা কৃষি ক্ষেত্রে সংস্কারকে বাধা দিতে ভয় ও বিভ্রান্তিকর পরিবেশ তৈরি করতে চেয়েছিল। তাদের মূল্য উদ্দেশ্য হল কৃষকরা যাতে মধ্যসত্ত্ব ভোগীদের দাসত্ব করে যায়। 


বিজেপির রাজ্যসভার সাংসদ রাজীব চন্দ্র শেখরও এই ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন।  তিনি বলেছেন সংসদে বেশ কয়েক বছর কাটিয়েছেন তিনি। কিন্তু এর আগে কখনও এ জাতীয় হিংসে, অমর্যাদাপূর্ণ ব্যবহার করতে  দেখেননি। পাশাপাশি তিনি বলেন সিপিএম, তৃণমূল আর কংগ্রেস ঐক্যবদ্ধভাবে রাজ্যসভার ডেপুটি চেয়ারম্যান ও তাঁর মার্শালের বিরুদ্ধে যে রূপ আরচরণ করেছে তাও মেনে নেওয়া যায় না। 

ঘটনার প্রতিবাদে সরব হয়েছে বিজেপি যুব নেতা তেজস্বী সুরিয়া।  ডেরেক ও'ব্রায়নকে নিশানা করে তিনি বলেন কুৎসিত ব্যবহার করেছেন তৃণমূল সাংসদ। যা সাংসদ হিসেবে গ্রহণ যোগ্য নয়। পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়ার বার্তায় তিনি রাজ্যের হিংসার ঘটনাও তুলে ধরে নিশানা করেন শাসক দল তৃণমূল কংগ্রসকে।