নিজের প্রেমিকের কাছেই ধর্ষিত হতে হল এক মেডিক্যাল ছাত্রীকে। জানা যাচ্ছে  সম্পর্ক ছেদ করতে চাওয়ায় নিজেই  নিজেই প্রেমিকাকে  ধর্ষণ করে ওই ছাত্র। 

অভিযুক্তের নাম দীপক রাঠি। ২৫ বছরের দীপক সরকারি আয়ুর্বেদিক মেডিক্যাল কলেজ থেকে পোস্ট গ্র্যাজুয়েশন করছে। কলেজে ওই মেডিক্যাল ছাত্রীর সঙ্গে সম্পর্ক তৈরি হয়েছিল দীপকের। অভিযোগ কলেজ ওয়াশরুমে থাকাকালীন ওই ছাত্রীর একটি ভিডিও তুলেছিল অভিযুক্ত।

হরিয়ানার গুরগ্রামের বাসিন্দা ওই তরুণী প্রেমিকের হাতে ধর্ষিত হওয়ার পর তাকে এরিয়ে চলতে শুরু করেছিল। পরবর্তী সময়ে প্রাক্তন প্রেমিকার অত্যাচার বেড়ে গেলে শেষপর্যন্ত পুলিশের দ্বারস্থ হতে হয় ওই তরুণীকে। তার অভিযোগের ভিত্তিতেই দীপক রাঠিকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

আরও পড়ুন: সম্পর্ক ভাঙতে প্রেমিকাকে ধর্ষণ চিকিৎসক ছাত্রের, ভিডিও বানিয়ে ব্ল্যাকমেইল তরুণীকে

জানাযাচ্ছে ১৬ ফেব্রুয়ারি বেঙ্গালুরুর জয়নগর এলাকায় একটি হোটেলে এই কাণ্ড ঘটায় দীপক। প্রেমিকার নামেই সেদিন হোটেলের ঘর বুক করেছিল সে। ব্যক্তিগত আলোচনার জন্য ডেকে তরুণীর উপর অত্যাচার চালায় সে। 

তদন্তকারী এক আধিকারিক জানান, "অভিযোগ জানারো পর আমরা তদন্ত করতে হোটেলে যাই। আমরা হোটেল কর্মীদের সঙ্গেও কথা বলি। তরুণী আমাদের বলেছিল, প্রথমে তাদের ,সম্পর্ক ছিল। যদিও পরে অভিযুক্ত তাকে এড়িয়ে চলতে শুরু করে।"

আরও পড়ুন: গাজিয়াবাদে মিলল করোনা আক্রান্তের সন্ধান, আতঙ্কে লউনউতে বন্ধ খোলা বাজারে মাছ-মাংস বিক্রি

ধর্ষণের পর প্রেমিকাকে আগামী বছর বিয়ের প্রতিশ্রুতিও দিয়েছিল দীপক। পাশাপাশি ধর্ষণের বিষয়টি পুলিশ ও পরিবারকে না জানারো কথা বলে সে। কিন্তু তরুণীর অভিযোগ, তারপর থেকেই তাকে এড়িয়ে চলতে শুরু করে দীপক। এমনকি শৌচালয়ে তার একটি গোপন ভিডিও দেখিয়ে ব্ল্যাকমেইল করা শুরু করে। পাশাপাশি দুজনে সম্পর্কে থাকাকালীন যাবতীয় কথোপকথনও উড়িয়ে দেয় অভিযুক্ত। 

জানাযাচ্ছে গত ২৪ ফেব্রুয়ারি তরুণীর মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নিয়ে সেখান থেকে দুজনের সব ছবিও ডিলিট করে দেয় দীপক। পাশাপাশি  প্রেমিকার সঙ্গে একাধিক পুরুষের সম্পর্ক রয়েছে বলে তরুণীর দিকে অভিযোগের আঙ্গুলও তোলে ওই চিকিৎসক ছাত্র।