বর্তমানে হাইপ্রোফাইল নেতা হিসেবেই তিনি গণ্য হন। দিনসভর ঠাসা কর্মসূচি তাঁর। তাঁর মধ্যরাতের কান্নানই সাধারণতন্ত্র দিবসের পর কৃষক আন্দোলনে প্রাণের সঞ্চার করেছিল। আর সেই কারণে কৃষক মহলে বর্তমানে তিনি অনেকটাই গুরুত্বপূর্ণ। তিনি ভারতীয় কিষান ইউনিয়নেক নেতা রাকেশ টিকাইত। আগে থেকেই জানিয়েছিলেন হরিয়ানার কৃষক মহাপঞ্চায়েত উপস্থিত থাকবেন কৃষক আন্দোলনের নেতা রাকেশ টিকাইট। সেইমত বুধবার তিনি উপস্থিতি হয়েছিলেন ঝিন্ডের কৃষক মহাপঞ্চায়েতের জনসভায়। তাঁকে দেখতেই উপচে পড়া ভিড় ছিল। কিন্তু সেই সমাবেশেই যে এমন বিড়ম্বনার মধ্যে তাঁকে পড়তে হবে তা তিনি হয়তো স্বপ্নেও ভাবেননি। কারণে দিন প্রবল ভিড়ের চাপে সমাবেশ মঞ্চই ভেঙে পড়েন। পড়ে যায় কৃষক নেতা রাকেশ টিকাইত।

B-Team হতে চায় না BJP, আপাতত দল বদলে রাশ টানল গেরুয়া শিবির ...  

কৃষক আন্দোলন নিয়ে রিহানা-কঙ্গনার তরজা সোশ্যাল মিডিয়ায়, 'দুর্ভাগ্যজনক' বলল বিদেশ মন্ত্রক ...

সংবাদ সংস্থা এএনআইর প্রকাশ করা ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে প্রবল ভিড়ের মধ্যেই অনুষ্ঠানে হাজির হয়েছিলেন রাকেশ টিকাইট। মঞ্চে তাঁর সঙ্গে ছিলেন স্থানীয় নেতৃত্ব। ভিডিওতে দেখা গেছে ভাষণ শুরু করার আগেই মঞ্চটি ভেঙে পড়ে যায়। আচমকাই মঞ্চ ভেঙে যাওয়ায় রীতিমত আতঙ্কিত হয়ে পড়েন সভায় উপস্থিত মানুষরা।  

হরিয়ানার খাপ বা স্বনিযুক্ত গ্রাম আদালতই হল মহাপঞ্চায়েত। রাকেশ টিকাইট সহ বিভিন্ন কৃষক সংগঠনের নেতাদের নতুন তিনটি কৃষি আইন ও কৃষকদের সমস্যা নিয়ে আলোচনার জন্য আমন্ত্রণ জানান হয়েছে। দিল্লির উপকণ্ঠে চলা কৃষক আন্দোলনের পর থেকে এজাতীয় মহাপঞ্চায়েতের আয়োজন করা হচ্ছে। শুধু হরিয়ানা নয় উত্তর প্রদেশেও এজাতীয় মহাপঞ্চায়ের আয়োজন করা হচ্ছে। এই সভাগুলি থেকেই নতুন করে তিনটি কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবি জানানোর পাশাপাশি কৃষক সমস্যা নিয়েও আলোচনা হচ্ছে। একই সঙ্গে নূন্যতম সহায়ক মূল্য ও মান্ডি সিস্টেম নিয়েও আলোচনা হচ্ছে। তাই দিনে দিনে মহাপঞ্চায়েতগুলির গুরুত্ব ক্রমশই বাড়ছে।