যোধপুর: দারিদ্র এবং বিভিন্ন প্রতিকূলতাকে জয় করে যে লক্ষ্যে এগিয়ে যাওয়া যায় সেটাই ফের প্রমাণ করে দিলেন রাজস্থানে এক কৃষকের ছেলে৷ পকেটে আইটিআই ডিগ্রী৷ নিজের মেধা, পরিশ্রম আর ইচ্ছের জোরে চেতরাম গুর্জর তৈরি করে ফেললেন একটি হেলিকপ্টার৷ সঙ্গে সাহায্য করেছে ইউটিউবও৷ 

অবাক হলেও, এমনটাই ঘটেছে রাজস্থানের দৌসার বান্দিকুইয়ের আভানেরি গ্রামের এই যুবক৷ যা দেখতে এখন দূর দূরান্ত থেকে আসছেন অনেকেই৷
ইতিমধ্যেই এই হেলকপ্টারের একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়া থেকে সংবাদ মাধ্যমে জায়গা করে নিয়েছে৷ যেখানে দেখা যাচ্ছে চেতরামের তৈরি সেই তেরঙ্গা হেলিকপ্টারকে৷ 

আরও পড়ুন:দেহব্যবসার পর্দাফাঁস, চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে অশ্লীল কাজে বাধ্য করার অভিযোগ

জানা গিয়েছে, হেলিকপ্টার তৈরির স্বপ্ন সে বহুদিন ধরেই দেখছিল৷ এক বছরের কঠোর পরিশ্রমে সে এই হেলিকপ্টার তৈরি করেছে৷ চেতরামের দাবি, অনুমতি পেলে সে এটি মাটি থেকে ২০ ফুট উচ্চতা পর্যন্ত ওড়াতে পারবে৷ সে জানায়, এই কপ্টার তৈরি করতে প্রতিদিন ১২-১৫ ঘন্টা  সময় দিয়েছে সে৷ সেই সঙ্গে খরচ হয়েছে প্রায় ১০ লক্ষ টাকা৷ আর এই সমগ্র কর্মকাণ্ডে যে নিরন্তর তার পাশে থেকে মানসিক এবং আর্থিকভাবে সাহায্য করে গিয়েছেন তাঁর বাবা৷ 

সংবাদ সূত্র থেকে আরও জানা যাচ্ছে, হেলিকপ্টারটি তৈরি করতে গিয়ে এতে বার তিনেক বদল আনতে হয়েছে৷ প্রথমে মোটর সাইকেলের সিঙ্গল পেট্রল ইঞ্জিন লাগানো হয়, কিন্তু কপ্টারটি উড়তে ব্যর্থ হয়৷ এরপরে পরিবর্তন করে দেওয়য়া হয় ডিজেল ইঞ্জিন, কিন্তু তারপরেও ব্যর্থ হয় সে৷ এরপর হন্ডা সিভিজেড মোটরবাইকের দুটি ইঞ্জিন লাগানো হয় এবং কপ্টারে কিছু পরিবর্তন আনার পরে লক্ষ্যে পৌঁছতে সফল হন এই যুবক৷ 

আরও পড়ুন: আজ এনআরসি তালিকা প্রকাশ,অসমে জারি কড়া সতর্কতা, কী আছে রাজ্যবাসীর ভাগ্যে

এই হেলিকপ্টারে ১০ লিটার পেট্রল ভরা যেতে পারে বলে জানা গিয়েছে৷ লক্ষ্যে পৌঁছতে সফল কৃষকের ছেলে চেতরাম৷ কিন্তু কেন্দ্র এবং রাজ্য সরকার সাহায্য করলে চেতরাম তার এই প্রয়াসকে আরও শান দিতে পারে বলেই মনে করা হচ্ছে৷