কেন্দ্রীয় সরকার দেশের সেরা ১০টি পুলিশ স্টেশনের নামের তালিকা প্রকাশ করেছে। আর সেই তালিকায় প্রথম স্থান দখল করেছে মণিপুর। কেন্দ্রীয় সরকারের অধীনস্ত প্রেস ইনফর্মেশন ব্যুরোর প্রকাশ করা তালিকায় বলা হয়েছে, মণিপুরের থোবাল জেলার নংগপোকসেকমাই পুলিশ স্টেশন চলতি বছর সব থেকে ভালো কাজ প্রদর্শন করেছে। ২০১৭ সালে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেছিলেন দেশের সমস্ত কাজ  ও পরিষেবার ভিত্তিতে দেশের সমস্ত থানাগুলির মান নির্ধারণ করার জরুরি। আর সেইমত কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক করোনা মহামারির মধ্যেই দেশের সেরা ১০টি থানা নির্বাচন করেছে। 

দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে তামিলনাড়ুর সালেম শহরের এডাব্লুপিএস সুরমঙ্গলম থানা। তৃতীয় স্থানে অরুণাচনের চ্যাংলাং এলারাপ খরসং থানা। চতুর্থ স্থানে রয়েছে ছত্তিশগড়ের সুরজপুরের ঝিলমিলি। পঞ্চম স্থান দখল করেছে দক্ষিণ গোয়ার সনগুয়েম। ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জের উত্তর ও মধ্য আন্দামানের কালীঘাট থানা। সাত নম্বরে রয়েছে সিকিমের পূর্ব জেলার পাকিয়ং থানা। পরবর্তী দুটি থানা  হলউত্তর প্রদেশের মুরাদাবাদের কান্ট থানা। দাদার ও নগর হাভেলির থানভেল থানা। ১০ নম্বরে রয়েছে তেলাঙ্গনার করিম নগরের জম্মিকান্টু টাউন পিএএস। 

'নকল করোনা-টিকা থেকে সাবধান', প্রতিষেধক আসার আগেই কমলা সতর্কতা জারি করে নোটিশ ..

'আমরা আমাদের খাবার নিয়ে এসেছি', বিজ্ঞান ভবনের বৈঠকে কেন বলল আন্দোলনকারী অন্নদাতারা ...

প্রথম দশে পশ্চিমবঙ্গের একটিও পুলিশ স্টেশন নেই। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন দেশে হাজার হাজার থানা রয়েছে। কিন্তু এই সংক্ষিপ্ত তালিকায় স্থান পেয়েছে ছোট শহর ও গ্রামাঞ্চলে অবস্থিত থানাগুলি। আর এটি প্রমাণ করে যে দেশের মানুষকে পরিষেবা দেওয়ার জন্য দেশের পুলিশকর্মীরা নিরন্তর প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। অপরাধ রুখতে ও মানুষকে নিরাপত্তা দিতে তাঁদের নিষ্ঠা ও আন্তরিকতাও যথেষ্টগুরুত্বপূর্ণ।  সরকারী সূত্র অনুযায়ী  দেশের ১৬ হাজাপ ৬৭১টি থানার মধ্যে থেকে বেছে নেওয়া হয়েছে ১০টি থানা। প্রতিটি রাজ্যের পাঠানো তালিকার ভিত্তিতেই সেরার তালিকা তৈরি করা হয়েছে।