প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে আরও একধাপ সাফল্য পেল দেশ। আগামী দিনে ভারতীয় সেনা বাহিনী শক্রুপক্ষের যেককোন ট্যাঙ্ক বা রানওয়ে বা ব়়্যাডার নিমেষেই ধ্বংস করে দিতে পারবে। বৃহস্পতিবার ওড়িশা উপকূলে পরীক্ষায় সফল হল হক্ক আই (Hawk-i) থেকে স্মার্ট অ্যান্টি এয়ারফিল্ড ওয়েপেন বা SAAW এর উৎক্ষেপণ। এটি তৈরি করেছে রিসার্চ সেন্টার ইমারাট বা RCI। ডিফেন্স রিসার্চ অ্যান্ড ডেভলপমেন্ট অর্গানাইজেশন বা ডিআরডিও হক্ক আই ১৩২ থেকে এটি প্রথম স্মার্ট ওয়েপেন উৎক্ষেপণ।


ইন্দুস্থান অ্যারোনেটিক লিমিটেডের উদ্যোগেই হক্ক-আই এয়ার ক্র্যাফ্ট থেকে স্মার্ট অ্যান্টি ওয়ার ফিল্ড ওয়েপেন পরীক্ষা করা হয়। হ্যালের একটি বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে কোনও ভারতীয় হক্ক এমকে ১৩২ থেকে এটি প্রথম অস্ত্র চালনা। হ্যালের প্রধানম আর মাধবম জানিয়েছে কোম্পানি চালিত হক্ক১ প্ল্যাটফর্মটি ডিআরডিও আঞ্চলিকভাবে মোতায়েন করা সিস্টেমের জন্য ব্যাপকভাবে ব্যবহার করা হয়েছে।  সূত্রের খব গ্লাইড বোমাগুলি প্রচলিত ক্ষেপণাস্ত্রগুলির তুলনায় কম সস্তা, যেহেতু ক্রুজের ক্ষপণাস্ত্রগুলির মধ্যে তেমন জটিল কোনও সিস্টেম নেই। 

শপথ নিয়ে গণতন্ত্রের জয় বললেন বাইডেন, বিদায়কালে নাম না করে শুভেচ্ছা জানালেন ট্রাম্প ...

সাবধানের মার নেই, ২৫ কিলো সোনা চুরি করতে দিল্লিতে চোরের ভরসা পিপিই কিট ...

এসএএসডাব্লু একটি বিমান চালু করেছে যা ১২৫ কেজি পর্যন্ত যে কোনও সামগ্রীকে খুব ভালো করে আঘাত করতে পারে। এটির পরিসীমা ১০০ কিলোমিটার। অর্থাৎ ১০০ কিলোমিটারের মধ্যে শত্রুপক্ষের ১২৫ কিলোর যেকোনও সামগ্রীকে ধ্বংস করার ক্ষমতা রাখে এই অস্ত্র। ব়়্যাডার বাঙ্কার ট্র্যাক, ট্যাঙ্ক, ও রানওয়ে ধ্বংস করেত এটি আগামী দিনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা গ্রহণ করবে বলেও জানিয়েছে ডিআরডিও। আগে এটি জাগুয়ার বিমান থেকে পরীক্ষা করা হয়েছিল। হ্যালের পরীক্ষার পর বলা হয়েছে, এই এয়ারক্র্যাফ্টটি সমস্ত উদ্দেশ্য পুরণ করেছে। সংস্থার পক্ষ থেকে জানান হয়েছে পুরো পরীক্ষা পদ্ধতিটি রেকর্ড করা হয়েছে। ভারতীয় সশস্ত্র বাহিনীর সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে আগামী দিনে আরও অস্ত্র তৈরি করা হবে বলেও জানান হয়েছে সংস্থার পক্ষ থেকে।