শপথ গ্রহণের আগে সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা দিয়ে বলেছিলেন আজ আমেরিকার জন্য নতুন একটি দিন। আর মার্কিন রাষ্ট্রপতি হিসেবে শপথ গ্রহণের সময় বললেন গণতন্ত্রকেই সবখেরে বেশি গুরুত্ব দেবেন। ৪৬তম মার্কিন রাষ্ট্রপতি হিসেবে শপথ গ্রহণ করলেন জো বাইডেন। আর মার্কিন উপরাষ্ট্রপতি  হিসেবে শপথ গ্রহণ করে রেকর্ড তৈরি করছেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত কমল্যা হ্যারিস। তিনি হলেন প্রথম মহিলা রাষ্ট্রপতি। 


মার্কিন রাষ্ট্রপতি হিসেবে শপথ গ্রহণের সময় ডো বাইডেন বলেন, তিনি সেব শক্তিগুলিকে চেনেন যেগুলি তাঁদের বিভিক্ত করার চেষ্টা করে। পাশাপাশি তিনি এটাও জানেন এটা কোনও নতুন ব্যাপার নয়। ইতিহাস বলছে এজাতীয় ঘটনা আগেও ঘটেছে। কিন্তু আদর্শকে বাঁচানোর জন্য মার্কিনিদের একটি অতীত রয়েছে। যেখানে তারা বর্ণবৈষম্য, নাতিবাদের বিরুদ্ধে লড়াই করেছে। তিনি আরও বলেছেন আমেরিকাকে একত্রিত করা আর আমেরিকানকে ঐক্যবদ্ধ করারই হবে তাঁর প্রথম ও প্রধান লক্ষ্য। তিনি আরও বলেন এটা কোনও প্রার্থীর জয় নয়। এটা গণতন্ত্রের জয়। বাইডেন বলেন বর্তমানে গণতন্ত্র বিরাজ করছে। 

এদিন বাইডেনের সঙ্গে উপরাষ্ট্রতি হিসেবে শপথ গ্রহণ করেন কমল্যা হ্যারিস। জো বাইডেনকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।  কমল্যা হ্যারিসকে শুভেচ্ছা জানিয়েছে উপরাষ্ট্রপতি বেঙ্কাইয়া নাউডু। 

বাইডেন আর হ্যারিসের শপথ গ্রহণের কিছু আগেই হোয়াইট হাউসে চেড়ে পত্নিকে নিয়ে চলে যান ডোনাল্ড ট্রাম্প। যাওয়ার আগে তিনি বাইডেনের প্রশাসনের সাফল্য কামনা করেন।  তবে একই সঙ্গে তিনি বলেন এই দেশের আর কোনও ভালো হতে পারে না।  তিনি একবারও বাইডেনের নাম উচ্চারণ করেনি। পাশাপাশি তিনি জনগণের উদ্দেশ্যে বলেন তিনি তাঁদের হয়ে যে লড়াই শুরু  করেছেন তা আগামী দিনেও চালিয়ে যাবেন।