বাড়ির সামনেই এক মুসলিম যুবকের উপর হামলা চালিয়েছিল একদল ধর্মান্ধ দুষ্কৃতী। মুসলিম যুবককে দিয়ে জোর করে জয় শ্রীরাম বলানোর জন্য মারধর করছিল তারা। আক্রান্ত ওই মুসলিম যুবকের আর্তনাদ শুনে শেষ পর্যন্ত তাঁকে উদ্ধার করল এক হিন্দু দম্পতি। 

আরও পড়ুন- লঙ্গরখানায় সাধারণ মানুষের পাশে বসে খাবার খাচ্ছে এক বানর, ভিডিও ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়

শুক্রবার ভোররাতে এই ঘটনা ঘটেছে মহারাষ্ট্রের ওরাংগাবাদ শহরে।আক্রান্ত ওই যুবকের নাম ইমরান ইসমাইল পটেল। তিনি একটি হোটেলের কর্মচারী। একটি সর্বভারতীয় ইংরেজি দৈনিকের খবর অনুযায়ী, শুক্রবার ভোরের দিকে কাজ সেরে বাইকে চালিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন তিনি। তখনই বেগমপুরা এলাকার হাডকো কর্নারের কাছে তাঁর পথ আটকায় জনা দশেক যুবক। অভিযোগ ওই যুবককে মারধর করতে শুরু করে দুষ্কৃতীরা। জয় শ্রীরাম বলার জন্য চাপ দেওয়া হয় আক্রান্তের উপরে। যেখানে এই ঘটনা ঘটে, তার পাশেই ওই হিন্দু দম্পতির বাড়ি।

আরও পড়ুন- দলিত, সংখ্যালঘু নির্যাতনে শীর্ষে যোগী রাজ্য, গোবলয়ে বাড়ছে বিপদ

ইসমাইলের চিৎকার শুনে তাঁরা বাড়ির বাইরে এসে হামলাকারীদের নিরস্ত করেন। ইসমাইলকে আর মারধর না করার জন্য যুবকদের অনুরোধ করেন তাঁরা। দুষ্কৃতীদের থেকে আক্রান্ত যুবকের বাইকের চাবিও উদ্ধার করে ওই দম্পতি। প্রতিরোধের মুখে পড়ে এলাকা ছাড়ে অভিযুক্তরা।

ঘটনার পরেই পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেছেন আক্রান্ত যুবক। ওই হিন্দু দম্পতি কিভাবে তাঁকে বাঁচিয়েছে, তারও উল্লেখ করেছেন তিনি। ঘটনায় তদন্ত শুরু হলেও এখনও কেউ গ্রেফতার হয়নি। তবে দুষ্কৃতীদের রোষের মুখে পড়ার ভয়ে বিষয়টি নিয়ে ওই দম্পতি কোনও মন্তব্যে রাজি হয়নি।