কাশ্মীর ফাইলসের প্রোপাগান্ডা বিতর্ক, ইজ়রায়েলি রাষ্ট্রদূত গিলনকে হেনস্থা করার অভিযোগ

| Dec 03 2022, 08:28 PM IST

ponniyin selvan 1 to kgf 2 the kashmir files and these films blust on box office with huge collection KPJ

সংক্ষিপ্ত

 ইজ়রায়েলি পরিচালক লাপিড নাদাভ প্রকাশ্যে কাশ্মীর ফাইলসকে প্রোপাগান্ডা বলার পর থেকেই নাকি ইজ়রায়েলি রাষ্ট্রদূত গিলনকে  রীতিমতো হেনস্থা করছেন ভারতবর্ষের এক জনৈক ব্যক্তি। নিরাপত্তার কারণে ওই ব্যক্তির নাম প্রকাশ্যে আনেননি গিলন 

কাশ্মীর ফাইলসকে প্রকাশ্যে প্রোপাগান্ডা বলে বিতর্কে জড়িয়েছিলেন ইজ়রায়েলি পরিচালক লাপিড নাদাভ। কিছু দিন আগে গোয়ায় আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের মঞ্চে কাশ্মীর ফাইলস দেখানোর সময় হঠাৎ করেই দর্শকাসন থেকে উঠে দাঁড়িয়ে তিনি বলেন এই সিনেমাটিকে নিছকই একটি প্রোপ্যাগান্ডা। সিনেমাটিকে অশ্লীল ও প্রচারধর্মী বলে কটাক্ষও করেন তিনি। এরপর ফের শুরু হয় কাশ্মীর ফাইলসকে নিয়ে নয়া সমালোচনার ঝড়। অনেকেই বলেন জুড়ি হিসেবে সিনেমাটি তার ভালো নাই লাগতে পারে তাবলে তার সেই ভালো না লাগাটা এইভাবে প্রকাশ করা মোটেই উচিত হয়নি তার। তিনি পারলে নম্বর দিতেন না সিনেমাটিকে কিন্তু এইভাবে প্রকাশ্যে 'প্রোপাগান্ডা' বলে তিনি সিনেমা যারা বানিয়েছেন তাদের অবমাননা করছেন । আবার অনেকে বলেন রাজনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গি থেকে বিচার না করে তিনি যদি এটিকে শৈল্পিক দৃষ্টিভঙ্গিতে বিচার করতেন তাহলে হয়তো এতো সমস্যার সৃষ্টি হতো না। কিন্তু এই সব মন্তব্যের উর্দ্ধে গিয়ে শনিবার ইজরায়েলি রাষ্ট্রদূত গিলনের একটি টুইটবাণী ফের উস্কে দিলো নয়া বিতর্ক।

গিলন শনিবার তার এক টুইটবার্তায় বলেন যে ইজ়রায়েলি পরিচালক লাপিড নাদাভ প্রকাশ্যে কাশ্মীর ফাইলসকে প্রোপাগান্ডা বলার পর থেকেই নাকি গিলনকে রীতিমতো হেনস্থার স্বীকার হতে হচ্ছে ভারতবর্ষের এক জনৈক ব্যক্তির কাছে। নিরাপত্তার কারণে ওই জনৈক ব্যক্তির নাম প্রকাশ্যে না আনলেও তিনি বলেন যে ওই ব্যক্তি নাকি তাকে মেসেজ করে বলেন যে ,'হিটলার মহান ব্যক্তি ছিলেন। তিনি আপনার মতো অযোগ্যদের পুড়িয়ে দিয়েছিলেন। যত শীঘ্র সম্ভব ভারত থেকে আপনি বেরিয়ে যান।'

Subscribe to get breaking news alerts

এই ঘটনার পর বিতর্কটিকে লঘু করতে পরিচালকের বক্তব্য নিয়ে ভারতের কাছে ক্ষমা চান ইজ়রায়েলি রাষ্ট্রদূত গিলন। শুধু তা-ই নয়, নিজের দেশের পরিচালককে তীব্র ভর্ৎসনা করেন তিনি।

বিতর্কের মুখে ক্ষমা চেয়ে নেন লাপিডও। তাঁর বক্তব্যের ভুল ব্যাখ্যা করা হয়েছে বলেও দাবি করেন তিনি। যাঁদের খারাপ লেগেছে, তাঁদের কাছে পরিচালক ক্ষমা চেয়ে নেন। তবে একই সঙ্গে তিনি দাবি করেন, বিবেক অগ্নিহোত্রী পরিচালিত ‘দ্য কাশ্মীর ফাইল্‌স’ ছবিটি ‘অশালীন’, ‘হিংসাত্মক’ এবং ‘প্রচারমূলক’।