দিল্লি থেকে দেড় হাজার কিলোমিটার বেশি দূরে সুদূর হায়দরাবাদের ভোট প্রচারে গিয়ে কৃষক বিক্ষোভ নিয়ে মুখ খুললেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহ। রবিবার তিনি বলেন তিনি কখনই বলেননি কৃষকদের বিক্ষোভ রাজনৈতিকভাবে অনুপ্রাণিত। একতা তিনি এখনও বলবেন না বলেও জানিয়েছেন। অমিত শাহ যথন হায়দরাবাদে এই মন্তব্য করছেন তখন দিল্লিক কৃষকরা তাঁর শর্ত সাপেক্ষে আলোচনার প্রস্তাব খারিজ করে দিয়েছে। 

হায়দরাবাদ পুরসভা নির্বাচনের প্রচারে যোগী আদিত্যনাথ, জেপি নাড্ডার প্রথম প্রথম সারির বিজেপির নেতাদের পর বিজেপির স্টার ক্যাম্পেনার হিসেবে ভোট প্রচার করেন অমিত শাহ। তিনি বলেন এবার হায়দরাবাদে নিজামতন্ত্র শেষ হোক। হায়দরাবাদে প্রতিষ্ঠা হোক গণতন্ত্রের। হায়দরাবাদের গিয়ে অমিত শাহ নিশানা করেন সেখানে বিজেপি প্রধান প্রতিপক্ষ তেলাঙ্গনা রাষ্ট্রীয় সমিতির বিরুদ্ধে। টিআরএস আসাউদ্দিন ওয়াইসির মিমের সঙ্গে অশুভ আঁতাত তৈরি করে ভোটে লড়ছে বলেও অভিযোগ করেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।  ওয়েসির সঙ্গে কেসিয়ারের গোপন সমঝতা রয়েছে বলেও দাবি করেন অমিত শাহ। হায়দরাবাদের একটা বড় অংশই মুসলমান অধ্যুশিত। সেকথা মাথায় রেখে অমিত শাহ নাম না করে সিএএ ও এনআরসি প্রসঙ্গ উত্থাপন করেন। তিনি বলেন কেই দেশের কোনও মানুষকে দ্বিতীয় শ্রেণির নাগরিক তৈরি করবে না। পাশাপাশি স্থানীয় প্রশাসনের বিরুদ্ধে একাধিক দূর্ণীতির অভিযোগ তুলেও সরব হন অমিত শাহ। তিনি বলেন তাঁর দল রাজতন্ত্র থেকে গণতন্ত্রের পথে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে। পাশাপাশি দূর্ণীতির পথ থেকে স্বচ্ছতার পথে  নিয়ে যাওয়া হবে হায়দরাবাদকে। 

অমিত শাহ নির্বাচনী প্রচার উপলক্ষ্যে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রার আয়োজন করা হয়। পুরাতন হায়দরাবাদের ভাগ্যলক্ষী  মন্দিরে আরতিও করেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।