জেলেই বিচারাধীন অবস্থায় মৃত্যু হল ভুইফোঁড় অর্থলগ্নি সংস্থার মালিকের। ভূবনেশ্বর জেলে মারা গেলেন আইকোর চিটফান্ড সংস্থার মালিক অনুকূল মাইতির। জেলে থাকাকালীন আগেও বেশ কয়েকবার অসুস্থ হয়েছিলেন তিনি। শনিবার রাতে ফের অসুস্থ হয়ে পড়েন। সেখান থেকে তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে মৃত্যু হয় অনুকূল মাইতির।

আরও পড়ুন-'অস্বাভাবিক হারে বাড়ছে আলু-পেঁয়াজের দাম', মূল্যবৃদ্ধি নিয়ন্ত্রণে কেন্দ্রের কাছে অনুরোধ তৃণমূলের

বেআইনি অর্থলগ্নি সংস্থা আইকোর কর্তা অনুকূল মাইতি গ্রেফতার হয়েছিলেন ২০১৭ সালে। প্রায় তিন হাজার কোটি টাকা বাজার থেকে তোলার অভিযোগে পূর্ব মেদিনীপুরের বাসিন্দা অনুকূলকে গ্রেফতার করে সিবিআই। পশ্চিমবঙ্গ, ওড়িশা, ত্রিপুরা, ঝাড়খন্ড সহ বেশ কয়েকটি রাজ্য়ে লক্ষ লক্ষ লগ্নিকারীর কাছ থেকে টাকা তোলার অভিযোগ ওঠে। লগ্নিকারীদের তিন হাজার কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ ওঠে অনুকূল মাইতি ও স্ত্রী কনিকার বিরুদ্ধে। অনুকূল মাইতি সহ তাঁর স্ত্রী কনিকাকেও গ্রেফতার করেছিল সিবিআই।

আরও পড়ুন-আগুনে ভস্মীভূত পরপর ৬টি কারখানা, হাওড়ার ডোমজুড়ে আগুন-আতঙ্ক

ওড়িশার এক লগ্নিকারীর অভিযোগের ভিত্তিতে আইকোর কর্তা অনুকূল মাইতিকে গ্রেফতার করেছিল সিবিআই। গ্রেফতার হয়েছিলেন তাঁর স্ত্রী কনিকাও।  অনুকূল মাইতিকে গ্রেফতারের পর ওড়িশায় ভুবনেশ্বর জেলে নিয়ে যাওয়া হয়। ঝারপাড়া বিশেষ কারাগারে রাখা হয়েছিল তাঁদের। রবিবার রাতে জেলে থাকাকালীন অসুস্থ অবস্থায় অনুকূল মাইতির মৃত্যু হয়েছে বলে কারা দফতর সূত্রে খবর। অনুকূলের মৃত্য়ুর খবর তাঁর স্ত্রী কনিকাকেও জানানো হয়েছে। তবে আইকোর কর্তার মৃত্যুর কারন নিয়ে এখনও স্পষ্ট নয় সিবিআই। জেল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করে আসল কারন জানার চেষ্টা করছেন তদন্তকারীরা।