ভারতের বুকে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমেই বেড়ে চলেছে। তৃতীয় সপ্তাহের প্রথমেই সংক্রমণের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ১৬৯। দেশের একাধিক জায়গাতে ছড়িয়ে পড়েছে করোনা ভাইরাস। বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে স্কুল-কলেজ। ১৫ই এপ্রিল পর্যন্ত বন্ধ থাকবে রাজ্যের স্কুলগুলোও। এরই মাঝে কেবল চলছিল বোর্ডের পরীক্ষা। দশম ও দ্বাদশ শ্রেণীর পরীক্ষাও এবার পিছিয়ে দেওয়া হল।

বৃহস্পতিবার থেকে পিছিয়ে দেওয়া হল চলতি মাসের সব পরীক্ষা। স্থগিত রাখা হবে ৩১ মার্চ পর্যন্ত। ইতিমধ্যেই দেশের মহারাষ্ট্র, কেরল, উত্তরপ্রদেশ, দিল্লি, তেলেঙ্গানা, কর্নাটক ও তামিলনাড়ুতে ছড়িয়েছে। কলকাতার বুকেও পাওয়া গিয়েছে করোনা ভাইরাস। ফলে সর্বস্তরে সকর্তকা জারি করার জন্য এবার পরীক্ষার্থীদেরও ছুটি দেওয়া হল। বোর্ড পরীক্ষার পাশাপাশি পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে জয়েন্ট এন্ট্রান্স পরীক্ষা, কলেজের পরীক্ষাও। 

আরও পড়ুন: দাদু আটকে রয়েছেন নার্সিংহোমে, নিজের বাগদানের কথা জানাতে জানলাই ভরসা তরুণীর, হৃদয় ছুঁল ছবি

আরও পড়ুন: ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ১৫১, বারাণসী ও হরিদ্বারে বন্ধ হল বিখ্যাত গঙ্গা আরতি

পরীক্ষার বিস্তারিত খবর জানানো হবে ৩১ মার্চের পর। বৃহস্পতিবারই সকালবেলা বিজ্ঞপ্তি জারি করে জানিয়ে দেওয়া হয় সিআইএসসিই-র পক্ষ থেকে। পরীক্ষা শেষ হওয়ার কথা ছিল ৩০ ও ৩১-এ মার্চ। কিন্তু সেই পরীক্ষা শেষ কবে হবে তা এখনই স্পষ্ট করে জানানো হয়নি বোর্ডের পক্ষ থেকে।