রাজ্যের সহকারী পর্যবেক্ষণের দায়িত্ব পেয়েই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারকে নিশানা করে একের পর এক তীর ছুঁড়ছেন বিজেপি আইটিসেল প্রধান অমিত মালব্য। দিন কয়েক আগে রাজ্যে এসে পিসির সরকার বলে তোপ দেগেছিলেন মালব্য। এবার সোশ্যাল মিডিয়ায় কেন্দ্র থেকে পাওয়া তহবিল দিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কী করেছেন বলেও প্রশ্ন ছুঁড়ে দেন বিজেপি নেতা অমিত মালব্য। 

জইশ জঙ্গিদের ছক বানচাল করেছে ভারত, জম্মুর এনকাউন্টার নিয়ে পাকিস্তানকে নিশানা প্রধানমন্ত্রীর

দিল্লি ছাড়ার আগে বিরোধীদের মন রাখতে উদ্যোগ সনিয়ার, রদবদল কংগ্রেসের তিনটি কমিটিতে ...

আইটি সেলের প্রধান অমিত মালব্য সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি বার্তা দিয়ে বলেন করোনাকালে লকডাউনের সময় পশ্চিমবঙ্গ গ্রাম উন্নয়ন মন্ত্রক থেকে সবথেকে বেশি টাকা আর্থ সাহায্য পয়েছেছেন। তিনি দাবি করেছেন ৬টি প্রকল্পের আওতায় বিলি করা হয়েছে ৪৯ হাজার ২৭০ কোটি টাকা। তারমধ্যে পশ্চিমবঙ্গ পেয়েছে ৫ হাজার ৯২৬ কোটি টাকা। রাজ্যের দরিদ্র ও অভিবাসী শ্রমিকরা এখনও সমস্যার মধ্যদিয়ে দিন যাপন করছেন। এই মন্তব্য করে তিনি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে জানতে চেয়েছেন কেন্দ্র থেকে পাওয়া টাকা কী করেছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী। 

মনরেগা, প্রধানমন্ত্রী গ্রাম সড়ক যোজনাসহ একাধিক প্রকল্পের আওতায় গত মার্চ মাস থেকে এপর্যন্ত প্রচুর চাকা বিলি করা হয়েছে। সেইসব ফান্ড থেকে সবথেকে বেশি টাকা গ্রহণ করছে পশ্চিমবঙ্গ। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে বিহার। সবথেকে কম টাকা নিয়েছে গোয়া। এই জাতীয় তথ্য তুলে ধরে বিজেপি নেতা কিছুটা হলেও সমস্যায় ফেলতে চেয়েছেন রাজ্য প্রশাসনকে। এমনিতেই কেন্দ্রের টাকা এই রাজ্যে সঠিকভাবে খরচ হয়না বলে বারবারই অভিযোগ তুলেছেন একাধিক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। তারওপর তৃণমূলের বিরুদ্ধে কাটমানি নেওয়ার অভিযোগও করেছে বিজেপি। ভোটের আগে সেইসব ইস্যুকে আবারও চাঙ্গা করতে মরিয়া প্রয়াস চালাচ্ছে গেরুয়া শিবির। আগামী বছরই পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন। আর আসন্ন বিধানসভা নির্বচনে জয়ের লক্ষ্যেই কোনও অস্ত্রই হাতছাড়া করতে নারাজ বিজেপি। অমিত মালব্য সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা দিয়ে সেই কথা আরও একবার স্মরণ করিয়ে দিলেন বলেও মনে করছে রাজনৈতিক মহল।