জম্মু কাশ্মীরের এনকাউন্টার নিয়ে মুখ খুললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা দিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন, ভারত আবারও পাকিস্তানের নাশকতার ছক বানচাল করেছে। তিনি আরও বলেন পাকিস্তানের মদত পুষ্ট জইশ ই মহম্মদের ৪ জঙ্গি ও তাদের সঙ্গে থাকা প্রচুর পরিমাণ অস্ত্র ও বিষ্ফোরক উদ্ধার করেছে। যা প্রমাণ করে ভারতে বড় ধরনের নাশকতার ছক কষ ছিল জঙ্গিরা। আর ভারত সেই প্রচেষ্টা ব্যর্থ করেছে বলেও দাবি করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। 


প্রধানমন্ত্রী সোশ্যাল মিডিয়ায় পাকিস্তানের নাম করে প্রতিবেশী রাষ্ট্রটিকেও বার্তা দিতে চেয়েছেন বলে মনে করছে বিশেষজ্ঞরা। দীর্ঘ দিন ধরেই পাকিস্তানের বিরুদ্ধে জঙ্গিদের মদত দেওয়ার অভিযোগ তুলে সরব ভারত। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সুরে সুর মিলিয়ে একই কথা বলছেন কেন্দ্রীয় শীর্ষ স্থানীয় এক আধিকারিক। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কেন্দ্রীয় সরকারের এক আধিকারিক জানিয়েছেন মুম্বই জঙ্গি হামলার বার্ষিকীর কথা মাথায় রেখে বড়সড় নাশকতা চালানোর ছক কষেছিল জঙ্গিরা। আর মাত্র ৬ দিন পরেই অর্থাৎ ২৬ নভেম্বর মুম্বই হামলার বারো বছর পুরণ করবে। সেই দিন ভারতের জন্য আরও একটি কালো অধ্যায় রচনার তোড়জোড় শুরু করেছিল জঙ্গিরা। তেমনই জানিয়েছে সূত্র। 

দুর্গা পুজোয় ২০০ টাকা চাঁদা না দেওয়ার 'শাস্তি', ২ সপ্তাহ ধরে সামাজিক বয়কট ১৪টি আদিবাসী পরিবারকে ...

কেন্দ্রের টাকা কী করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়, সোশ্যাল মিডিয়ায় হিসেব চাইলেন অমিত মালব্য ..

সূত্রের খবর জম্মুর বান টোলপ্লাজায় হওয়া এনকাউন্টার নিয়ে একটি উচ্চপর্যায়ের বৈঠক হয়েছিল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, স্বারাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ ও জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভালের উপস্থিতিতে। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বিদেশ সচিব হর্ষ শ্রিংলা ও গোয়েন্দা বিভাগের শীর্ষস্থানীয় আধিকারিকরা। নিরাপত্তায় জোর দেওয়ার বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়।

জম্মুর টোল প্লাজায় নিহত চার জঙ্গি আপেলের ট্রাকে করে কাশ্মীর উপত্যকার দিকে যাওয়ার চেষ্টা করেছিল। কিন্তু গোপন সূত্রে খবর পেয়ে প্রথম থেকে তৎপর ছিল স্থানীয় প্রশাসন ও নিরাপত্তা বাহিনী। আর সেই কারণেই বেশ কয়েক ঘণ্টার গুলির লড়াইয়ে কাবু করা গিয়েছিল জঙ্গিদের। বৃহস্পতিবার সকালে হয় এই এনকাউন্টার। স্থানীয় প্রশাসন জানিয়েছিল জইশ ই মহম্মদের চার জঙ্গি নিহত হয়েছে গুলির লড়াইয়ে। গুলির লড়াইয়ের সময় দুই নিরাপত্তা রক্ষীও ঘায়েল হয়েছিল। এই ঘটনার পরই সংশ্লিষ্ট এলাকায় বাড়ানো হয়েছে নিরাপত্তা।