আগামী ২০ মার্চ ফাঁসি হতে চলেছে নির্ভয়া কাণ্ডের চার অপরাধী মুকেশ সিং, পবন গুপ্তা, অক্ষয় ঠাকুর ও বিনয় শর্মার। ফাঁসির ঠিক ৩দিন আগে ফের আদালতের দ্বারস্থ হল নির্ভয়ার অন্যতম ধর্ষক মুকেশ সিং। মুকেশের দাবি, ঘটনার দিন দিল্লিতেই ছিল না সে। 

২০১২ সালের ১৬ ডিসেম্বর রাতে দিল্লির রাজপথে ফাঁকা বাসে ধর্ষণের শিকার হয়েছিলেন ২৩ বছরের প্যারামেডিক্যাল ছাত্রী। এই ঘটনায় অন্যতম দোষী সাব্যস্ত হয়েছে মুকেশ সিং। এই ঘটনার সাত বছর পর মুকেশ দাবি করল, সেদিন রাজধানীতেই ছিল না সে। আর সেই কারণে মুকেশের মৃত্যুদণ্ডে স্থগিতাদেশ দেওয়া হোক। 

আরও পড়ুন: ৪০ জন মানুষের জন্য ৩টি শৌচালয়, রাজধানীর কোয়ারেন্টাইনের অবস্থা তুলে ধরলেন স্পেন ফেরত তরুণী

আগামী শুক্রবার ভোর সাড়ে ৫টায় ফাঁসি হওয়ার কথা মুকেশ ও তার ৩ সঙ্গীর। তার আগে মঙ্গলবার দিল্লির আদলতে মুকেশের হয়ে এই আবেদন জমা দেন তার আইনজীবী এমএল শর্মা।  অতিরিক্ত দায়রা বিচারক ধর্মেন্দ্র রাণার সামনে আইনজীবী এমএল শর্মা জানান, মুকেশকে রাজস্থান থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ২০১২-র ১৭ ডিসেম্বর তাকে দিল্লিতে আনা হয়। ১৬ ডিসেম্বর ঘটনার সময় সে দিল্লিতে ছিলই না। তিহাড় জেলে মুকেশের উপর নিদারুণ অত্যাচার চালানো হয়েছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

আরও পড়ুন: রাজ্যসভায় এবার দেশের প্রাক্তন প্রধান বিচারপতি, বিতর্ক উস্কে মনোনয়ন দিলেন রাষ্ট্রপতি

সোমবারই ফাঁসি এড়াতে নির্ভয়াকাণ্ডে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত পবন গুপ্তা, অক্ষয় ঠাকুর ও বিনয় শর্মা আন্তর্জাতিক আদালতের দ্বারস্থ হয়েছে। তার পর দিনই দিল্লির আদালতের দ্বারস্থ হল মুকেশ। গত সোমবারই সুপ্রিম কোর্ট মুকেশ সিং-এর কিউরেটিভ পিটিশনের উত্তরে জানিয়ে দিয়েছে, তার আর কোনও আইনি সাহায্য বাকি নেই। 

এর আগে নির্ভয়ার অপরাধীদের ফাঁসির দিন ২ বার পিছিয়েছে। আইনি ফাঁকফোকর গলে এখনও ফাঁসি এড়ানোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে নির্ভয়াকাণ্ডে সাজাপ্রাপ্তরা। আগামী ২০ মার্চ তাঁদের ফাঁসি হয় নাকি এবারও বেঁচে যায় ৪ অপরাধী সেটাই এখন দেখার।