সারা বিশ্বের মত করোনা আতঙ্ক থাবা বসিয়েছে ভারতেও। বর্তমানে দেশের দক্ষিণের এই রাজ্যে ৩,২৫২ মানুষকে পর্যবেক্ষণে রয়েছে। করোনার উপসর্গ নিয়ে রাজ্যের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন ৩৪ জন। এর পাশাপাশি করোনা সন্দেহে রক্তপরীক্ষা করা ৩৪৫টে স্যাম্পেলের  মধ্যে ৩২৬ টি স্যাপ্লেন নেগেটিভ এসেছে। এর মধ্যেই রয়েছে সুখবর। ক্রমেই সুস্থ হওয়ার পথে ভারতের প্রথম করোনা আক্রান্ত রোগী। 

ভারতে এখনও পর্যন্ত তিন জনের শরীরে মিলেছে করোনা ভাইরাস। আক্রান্ত তিন জনেরই চিকিৎসা চলছে কেরলের তিনটি হাসপাতালে। এর মধ্যে ত্রিশূর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রোগী ক্রমেই সুস্থ হওয়ার পছে। তার সাম্প্রতির রক্ত পরীক্ষার রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। আরও একবার রক্তপরীক্ষা নেগেটিভ হলেই পুরোপুরি সুস্থ ঘোষণা করা হবে ওই রোগীকে।

আরও পড়ুন: শাহিনবাগে অনির্দিষ্টকালের অবরোধ চলবে না, কেন্দ্র ও দিল্লি সরকারকে সুপ্রিম নোটিস

সূত্রের খবর, ভারতে প্রথম করোনা আক্রান্ত নিজেই একজন মেডিক্যাল স্টুডেন্ট। উহান থেকে ফেরার পর গত ৩০ জানুয়ারি তাঁর রক্তে করোনা ভাইরাস পাওয়া যায়। তাঁর পঞ্চম সোয়াব পরীক্ষা রিপোর্টও নেগেটিভ এসেছে। এই অবস্থায় পরবর্তী স্যাম্পেল পরীক্ষাতেও কিছু পাওয়া না গেলে ওই মেডিক্যাল ছাত্রকে সুস্থ বলে ঘোষণা করা হবে।  

ত্রিশূরের স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানা গেছে, বর্তমানে ওই রোগীর অবস্থা স্থিতিশীল। তিনি ছা়ড়াও মোট সাতজনকে রাখা হয়েছেন ক্রিশূর হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে। তবে রাজ্যে মোট ৩১১৪ জনকে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। এদের মধ্যে ২০৯৯ জন্য রয়েছেন বাড়িতেই। বাকি ৪৫ জন ভর্তি রয়েছেন রাজ্যের বিভিন্ন হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে।

আরও পড়ুন: প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের ত্রিফলা আক্রমণ, খরা ও দাবানলের পর এবার ভাসছে অস্ট্রেলিয়া

এদিকে কেরলে করোনায় আক্রান্ত তিন জনই মেডিক্যাল স্টুডেন্ট। এরা প্রত্যেকেই চিনের উহান থেকে ভারতে আসেন। এদের মধ্যে বাকি দু'জনের চিকিৎসা চলছে আলাপ্পুজা ও কাসারগড়ে। 

এদিকে করোনা নিয়ে ক্রমেই আতঙ্ক ছড়াচ্ছে ব্রিটেনে। আরও নতুন করে চার জনের শরীরে করোনা ভাইরাস পাওয়া গিয়েছে। ফলে এই দেশে  করোনা আক্রান্তের সংখ্যা গিয়ে দাঁড়াল ৮।  এই পরিস্থিতিতে করোনা মোকাবিলায় ব্রিটেন সরকার বেশকিছু নতুন পদক্ষেপ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।