দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যায় ফের ভাঙল পুরনো রেকর্ড। বৃহস্পতিবার দেশে আক্রান্তের সংখ্যা ১৭ হাজারের কাছাকাছি ছিল। শুক্রবার সেই রেকর্ডও ভেঙে গেল। গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে করোনা সংক্রমণের শিকার হয়েছেন ১৭,২৯৬ জন। ফলে দেশে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪ লক্ষ ৯০ হাজার ৪০১।

 

গত ২৪ ঘণ্টায় মারণ ভাইরাসে মৃত্যু হয়েছে ৪০৭ জনের। ফলে ভারতে কোভিড ১৯ রোগে মৃত্যু বেড়ে হয়েছে ১৫,৩০১। তবে বিশ্বের মধ্যে ভারতেই মৃত্যু হার সবচেয়ে কম বলে দাবি করছে কেন্দ্র। 

আরও পড়ুন: এবার আকসাই চিনের জমি ফেরাতে মরিয়া ভারত, লাদাখে মোতায়েন ৪৫ হাজার জওয়ান

এর মধ্যে আশার খবর, দেশে করোনা মুক্ত হয়ে ইতিমধ্যে সুস্থ  হয়ে উঠেছেন ২ লক্ষ ৮৫ হাজার ৬৩৭ জন। ফলে দেশে বর্তমানে সক্রিয় আক্রান্তের সংখ্যা ১ লক্ষ ৮৯ হাজার ৪৬৩। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে সুস্থ হয়েছেন ১৩ হাজার ৯৪০ জন। ফলে দেশে মোট সুস্থতার হার বেড়ে হয়েছে ৫৮.২৪ শতাংশ। যা বিশ্বের মোট গড়ের তুলনায় অনেকটাই বেশি।  

আরও পড়ুন: ভারতীয় সেনার নজর ঘোরাতেই নাকি গালওয়ানে আগ্রাসন, লাল ফৌজের পরবর্তী হামলার লক্ষ্য ডেপসং

ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিক্যাল রিসার্চ জানাচ্ছে দেশে এখনও পর্যন্ত ৭৭ লক্ষ ৭৬ হাজার ২২৮টি করোনার নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় কোভিড পরীক্ষা হয়েছে ২ লক্ষ ১৫ হাজার ৪৪৬। বর্তমানে দেশে এক হাজারেরও বেশি ল্য়াবে করোনা পরীক্ষা হচ্ছে।

 

এদিকে করোনা সংক্রমণে ভারতের মধ্যে এখনও এক নম্বরে রয়েছে মহারাষ্ট্র। রাজ্যটিতে আক্রান্তের সংখ্যা ১ লক্ষ ৪৭ হাজার ছাড়িয়ে গিয়েছে। মারণ করোনা প্রাণ কেড়েছে ৬,৯৩১ জনের। করোনা সংক্রমণে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে দেশের রাজধানী। দিল্লিতে আক্রান্তের সংখ্যা ৭৩ হাজারা ছাড়িয়েছে। তৃতীয় স্থানে থাকা তামিলনাড়ুতে আক্রান্তের সংখ্যা ৭০ হাজারের বেশি। প্রধানমন্ত্রীর রাজ্য গুজরাতে এখনও পর্যন্ত করোনা সংক্রমণের শিকার ২৯ হাজারের বেশি মানুষ।

বিশ্বে মোট সংক্রমণের সংখ্যা ৯৫ হাজার ছাড়িয়েছে। মৃতের সংখ্যা ৪ লক্ষ ৮০ হাজারের বেশি। বিশ্বের মধ্যে আমেরিকায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় মার্কিন মুলুকে সংক্রমণের শিকার হয়েছেন ৩৭ হাজারের বেশি। দেশটিতে মারণ ভাইরাস এখনও পর্যন্ত প্রাণ কেড়েছে ১ লক্ষ ২৪ হাজারেরও বেশি মানুষের।