জম্মু ও কাশ্মীর ইস্যুতে এদিন লোকসভায় ঝড় তুললেন কংগ্রেস নেতা অধীর চৌধুরী। ভূস্বর্গের পরিস্থিতি নিয়ে কংগ্রেস সাংসদ রীতিমত তুলোধনা করেন বিজেপি সরকারে। শনিবারই সংসদে জম্মু ও কাশ্মীর পুনর্গঠন বিল ২০২১ পেশ করেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহ। আর তখনই সংসদের অমিত শাহ জম্মু ও কাশ্মীরের উন্নয়ন হচ্ছে বলেও দাবি করেন। তারপরই তিনি বলেন, সঠিক সময় জম্মু ও কাশ্মীরকে রাজ্যের তকমা ফিরিয়ে দেওয়া হবে। 

লোসভায় বাজেট অধিবেশনে বলতে উঠে কংগ্রেস সাংসদ আধীর চৌধুরী বলেন,  ৩৭০ ধারা রদের পর এখনও পর্যন্ত জম্মু ও কাশ্মীর স্বাভাবিক ছন্দে ফেরেনি। ৩৭০ ধারা রদের পর কেন্দ্রীয় সরকার যে স্বপ্ন দেখিয়েছিল এখনও পর্যন্ত তা পুরণ করতে পারেনি। কাশ্মীরী পণ্ডিতদের ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়নি উপত্যকায়। দীর্ঘ দিন অচলাবস্থা থাকার জন্য আর্থিক ক্ষতি হয়েছে প্রচুর পরিমাণে। ৯০ হাজার কোটি টাকা ক্ষতি হয়েছে স্থানীয়দের একই  সঙ্গে অধীর চৌধুরী কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে জানতে চান করে স্বাভাবিক হবে উপত্যকার পরিস্থিতি। এদিন অধীর চৌধুরী বলেন কেন্দ্রীয় সরকার গিলগিট বাল্টিস্তান ফিরিয়ে আনার কথা বলছে, কিন্তু এখনও পর্যন্ত কাশ্মীরী পণ্ডিতদের  উপত্যকায় ২০০-৩০০ একর জমি দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল তাই পুরণ হয়নি।  

শনিবার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী জম্মু ও কাশ্মীর পুনর্গঠন বিল ২০২১ নিয়ে আলোচনা করেন। সেই সময়ই তিনি স্পষ্ট করে জানিয়ে দিয়েছেন, উপযুক্ত সময়ই জম্মু ও কাশ্মীরকে রাজ্যের মর্যাদা দেওয়া হবে। একই সঙ্গে বিরোধীদের তোলা অভিযোগের উত্তর দিতে গিয়ে তিনি বলেন,যখন রাজ্যটিকে ভাগ করা হয়েছিল তখন কোথাও লেখা ছিল না ভূস্বর্গকে রাজ্যের মর্যাদা ফিরিয়ে দেওয়া হবে না। পাশাপাশি তিনি বলেন মাত্র ১৭ মাস হয়েছে। এরই মধ্যে বিরোধীরা এত প্রশ্ন করছে কিন্তু দিনের পর দিন যাঁরা কাশ্মীর শাসন করে এসেছেন তাদের কোনও প্রশ্নই করা হয়নি বলেও তিনি অভিযোগ করেন। একই সঙ্গে তিনি প্রশ্ন তোলেন ৭০ বছরে জন্মু ও কাশ্মীরের কতটা উন্নতি হয়েছে। পাশাপাশি তিনি বলেন কাশ্মীরীদের উন্নয়নের খতিয়ান দিতে তিনি দায়বদ্ধ।