কেন্দ্রের সঙ্গে কৃষকদের অষ্টম দফার বৈঠক শুরু হওয়ার কিছুক্ষণ আগেই সমস্যা সমাধান হবে হবে আশা প্রকাশ করলেন কেন্দ্রীয় কৃষি মন্ত্রী নরেন্দ্র সিং তোমর। তিনি বলেন, কেন্দ্রীয় সরকার কৃষকদের সমস্যা সমাধানে আন্তরিক। খোলা মন নিয়েই আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে। সমস্যা সমাধানে দুই পক্ষই আলোচনার সময় নিজেদের অবস্থান ছেড়ে এগিয়ে আসবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। এদিনই সমস্যা সমাধান হবে বলেও আশা প্রকাশ করেছেন কেন্দ্রীয় কৃষি মন্ত্রী। এর আগে কেন্দ্র সরকারের সঙ্গে আরও সাত দফা আলোচনায় বসেছিল কৃষকরা। কৃষকরা যেমন নতুন তিনটি কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবিতে অনড় ছিলেন তেমন আইন প্রত্যাহার না করার বিষয় অনড় ছিল কেন্দ্রীয় সরকার। তাই একাধিক বৈঠক হলেও তাতে কোনও রফাসূত্র পাওয়া যায়নি। 

সূত্রের খবর এদিন, এদিন বৈঠকে যোগ দেওয়ার আগে বৈঠকের বিষয়বস্তু নিয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলেন কৃষি মন্ত্রী নরেন্দ্র সিং তোমর। এদিন কৃষি মন্ত্রীকে প্রশ্ন করা হয়েছিল সমস্যা সমাধানে তাঁরা পঞ্জাবের ধর্মীয় নেতাদের সঙ্গে কথা বলবেন কিনা। সে প্রশ্নে উত্তরে তোমর জানিয়েছেন সমস্যা সমাধানে সরকার সকলেই স্বাগত জানিয়েছেন। বৃহস্পতিবার কৃষি মন্ত্রীরর সঙ্গে দেখা করেছিলেন পঞ্জাবের ধর্মীয় নেতা নানকসার গুরুদ্বারের প্রধান বাবা লাকা। 

তিনটি কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবিতে নিয়ে গত ৪৪ দিন ধরে দিল্লির উপকণ্ঠে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন পঞ্জাব ও হরিয়ানার কৃষকরা। কৃষি আইন প্রত্যাহারের পাশাপাশি নূন্যতম সহায়ক মূল্য নিয়েও আইন তৈরির দাবি জানিয়েছিলেন কৃষকরা। কিন্তু এমএসপি নিয়ে সরকার কিছুটা সুর নরম করলেও এখনও পর্যন্ত কৃষি আইন প্রত্যাহার করা হবে না বলেই জানিয়ে দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার।  অন্যদিকে আন্দোলনকারী কৃষকরাও নিজেদের অবস্থানে অনড় রয়েছে। শুক্রবারের বৈঠকে সমস্যা সমাধান না হবে আন্দোলনকারী কৃষকরা আগামী ২৬ জানুয়ারি জাতীয় রাজধানীর বুকে ট্র্যাক্টর ব়্যালি করবে বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছে। ইতিমধ্য়ে প্রশাসনের ঘাড়ের ওপর নিঃশ্বাস ফেলে মহড়া শুরু করেছে।