কঙ্গনা রানাউত কী এবার মহারাষ্ট্রের রাজনৈতিক সমীকরণ বদলে দেবেন। অনেকটা তেমনই ইঙ্গিত দিচ্ছে আরব সাগরের জল। কারণ কঙ্গনা রানাউত ইস্যুতে ইতিমধ্যে শিবসেনার ভূমিকা উষ্মা প্রকাশ করেছেন এনসিপি প্রধান শরদ পাওয়ার। ইতিমধ্যেই এনসিপি প্রধান শরদ পাওয়ার মরাহাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে আর সেনার নেতা সঞ্জয় রাউতের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে বৈঠক করবেন বলেও জানিয়েছেন। কঙ্গনা ইস্যুতে বৃহন্নুম্বাই পৌর কর্পোরেশ যে পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে তার রীতিমত সমালোচনা করেছেন তিনি। 

নোবেল শান্তি পুরষ্কারের তালিকায় নাম, হোয়াইট হাউস দখলের আগেই স্বস্তিতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প
বুধবার দুপুর থেকে পলি হিলে কঙ্গনার মণিকর্ণিকা ফিল্মের অফিস ভাঙার কাজ শুরু করেছিল শিবসেনার অধীনে থাকা বৃহন্নুম্বই পুরসভা। কিন্তু বম্বে হাইকোর্টের নির্দেশে আপাতত সেই কাজ বন্ধ করা হয়েছে। শিবসেনার এই কাজই পছন্দ নয় শরদ পাওয়ারের। তিনি বলেছেন এই জাতীয় কাজে অভিনেত্রীকে আরও বেশি জনপ্রিয়তা দেওয়া হবে। পাশাপাশি এনসিপি প্রধানের বক্তব্য ছিল, মুম্বইয়ে অবৈধ নির্মাণ নতুন কোনও বিষয় নয়।  কিন্তু পুরসভার যেভাবে কঙ্গনার অফিস ভাঙতে গেছে আর যেভাবে তা প্রচার করা হচ্ছে তাতে আখেরে কঙ্গনারই লাভ বলেও তিনি মনে করেন। তাঁরমতে বিষয়টিকে রীতিমত বড় করে দেখাচ্ছে মিডিয়া। আর তাতে এই ক্ষতি হতে পারে সরকারের।

নিউ নর্মালে কেমন হবে আপনার হ্যান্ড স্যানিটাইজার, মতামত দিয়েছেন বিদেশের বিশেষজ্ঞরা

২১ সেপ্টেম্বর থেকে মুক্তির স্বাদ পাবে পড়ুয়ারা, একগুচ্ছ শর্ত দিয়ে স্কুল খোলার পথে স্বাস্থ্য মন্ত্রক ...

 কিন্তু বিএমসির অভিযোগ কঙ্গনা যেভাবে তাঁর অফিস তৈরি করেছেন তাতে ১৪টি নিয়ম লঙ্ঘন করা হয়েছে। বিএমসির আরও অভিযোগ তিনি যেহেতু মুম্বইতে ছিলেন না তাই তাঁকে অতিরিক্ত সময় দেওয়া হয়েছিল। মুম্বইয়ের মেয়রের অভিযোগ, ২৪ ঘণ্টার মধ্যে প্রয়োজনীয় নথি দাখিল করতে ব্যর্থ হয়েছেন কঙ্গনা। তাই অফিস ভেঙে ফেলার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। অন্যদিকে মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ও বিজেপি নেতা দেবেন্দ্র ফড়নবিস কঙ্গনার সমর্থনে ময়দানে নেমেছেন। তিনি বলেছেন বিএমসি যে পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে তা মহারাষ্ট্রের ইতিহাসে আগে কখনও হয়নি। 

"