ইমরান খানের পোস্ট করা ফেক ভিডিও-র জের মিটতে না মিটতেই আবার এক রাজনীতিবিদ পড়লেন ফেক ভিডিও পোস্ট করার চক্করে। পুদুচেরির গভর্নর জেনারেল তথা দিল্লি পুলিশের প্রাক্তন কমিশনার কিরণ বেদী শনিবার একটি ভিডিও পোস্ট করে দাবি করেন, ভিডিওটি মার্কিন মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্র নাসার তোলা। সেই ভিডিও-তে শোনা যাচ্ছে সূর্য থেকে 'ওম' শব্দ বের হচ্ছে। ভিডিওটিতে বলা হয় সূর্য 'ওম' মন্ত্র জপ করছে। এরপরই নেটিজেনদের ব্যঙ্গ বিদ্রুপের মুখে পড়তে হল তাঁকে। যার জেরে কোনওমতে অবস্থা সামাল দেওয়ার চেষ্টা করলেন তিনি।

শনিবার, কিরন বেদী ওই ভিডিও পোস্ট করার পরই নেটিজেনরা তীব্র রসিকতা শুরু করেন। কেউ বলেন, কিরণ হৃত্বিক রোশন অভিনিত 'কই মিল গয়া'-র বড় ভক্ত। একজন একটি স্ট্যান্ডআপ কমেডিয়ানের ভিডিও-ও প্রকাশ করেন। সেখানে ওই কমেডিয়ান-কে বলতে শোনা গিয়েছে, নাসা যে মহাজাগতিক গুনগুনানির শব্দ রেকর্ড করে তাকেই ওম বলে চালানোর চেষ্টা হয়। পৃথিবীর বাইরে সব গ্রহ-নক্ষত্রতেও সকলেই হিন্দু বলে কটাক্ষ করেন ওই কমেডিয়ান।

এরপরই রবিবার আরও একটি পোস্ট করে নিজের ভুলের সাফাই দেওয়ার চেষ্টা করেন কিরণ। ওম শব্দকেই মহাজগতের উৎস, কম্পন ও চেতনা বলে ব্যাখ্যা করে তিনি বলেন, 'আমরা মানতেও পারি, নাও পারি। দুটি পছন্দই ভালো'।

তবে তাঁর এই সাফাই-ও ভালোভাবে নেয়নি নেটিজেনরা। ওম শব্দের ব্যাখ্যার থেকেও নাসার নাম করে ভুয়ো ভিডিও ছড়ানো নিয়েই বেশি সরব হয়েছেন তাঁরা। একজন বলেছেন কিরণের এই পোস্ট অনেকটাই শিক্ষকের সামনে ছাত্রদের ভুল উত্তরের পিছনে যুক্তি খাড়া করার মতো। আরেতজন বলেছেন ভুয়ো ভিডিও-কে সমর্থন না দিয়ে নাসার প্রকাশ করা কোনও সঠিক তথ্য তাঁর দেওয়া উচিত ছিল।