করোনাভাইরাসের উৎপাদন ও বিতরণ পদ্ধতি ক্ষতিয়ে দেখতে আগামী শনিবারই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী পুনের সেরাম ইনস্টিটিউটে যাচ্ছেন। কেন্দ্রীয় সরকারের এক উচ্চ পদস্থ আধিকারিক একথা জানিয়েছেন। অন্যদিকে পুনের বিভাগীয় কমিশনার সৌরভ রাও জানিয়েছেন আগামী ২৮ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রীর পুনে সফর সম্পর্কে অবগত করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সেদিন সেরাম ইনস্টিটিউট সফর করতে পারেন বলেও জানিয়েছেন তিনি। তবে বিষয়টি নিয়ে এখনও পর্যন্ত মুখ খুলেনি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়। 

তবে  প্রধানমন্ত্রীর পুনে সফর নিয়ে ইতিমধ্যেই একাধিক সভা করেছে স্থআনীয় প্রশানসন। কড়া নিরাপত্তা জারি করার বিষয়ে একটি ব্লু প্রিন্টও তৈরি করা হয়েছে বলে সূত্রের খবর। একটি সূত্র জানাচ্ছে প্রধানমন্ত্রী পুনের সেরাম ইনস্টিটিউটের হাদাসপার ক্যাম্প পরিদর্শন করবেন। এখানেই করোনাভাইরাসের প্রতিষেধক কোভিশিল্ড তৈরি হচ্ছে বলে সূত্রের খবর।  সৌরভ রাও জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সফর ও কর্মসূচি তৈরির কাজ প্রায় শেষের দিকে। তিনি আরও বলেন প্রধানমন্ত্রীর এই সফরের মূল উদ্দেশ্যই হল প্রতিষেধকটি তৈরির বিষয় পর্যবেক্ষণ করা। একই সঙ্গে প্রতিষেধকটির বিতরণ নিয়েও আলোচনা করবেন তিনি। 

মহামারি আর ঘূর্ণ ঝড় নিভার, এই দুইটির তাণ্ডবে অকালে ঝরে পড়ল এক করোনা যোদ্ধা ...

অবশেষে সুর নরম করলেন জিংপিং, বাইডেন ও হ্যারিসকে এতদিন পর অভিনন্দন চিনের ...

প্রতিষেধকটি ইতিমধ্যেমেই নিয়ামকদের ব্যবহারের অনুমোদন পেয়েছে। তাই প্রতিষেধকটি বিলির বিষয় কথা বলতেই তিনি পুনে যাচ্ছেন।অন্যদিকে সেরাম কর্তাদের সঙ্গে ইতিমধ্যেই কথা বলেছেন বেশ কয়েকটি দেশের রাষ্ট্রদূত। বিদেশ মন্ত্রক সূত্রে জানান হয়েছে দিল্লি থেকে রাষ্ট্রদূতদের দুটি দল ইতিমধ্যেই সফর করেছে সেরাম ইনস্টিটিউট। বিশ্বের বৃহত্তম প্রতিষেধক প্রস্তুতকারী সংস্থাটি অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় ও সুইডিস সংস্থা অ্যাস্ট্রোজেনেকার উদ্যোগে বিকাশ করা প্রতিষেধক তৈরির জন্য আগেই চুক্তিবদ্ধ হয়েছে। মহামারি রুখতে সেরাম প্রচুর পরিমাণে প্রতিষেধ তৈরি করবে বলেও জানিয়ে দিয়েছে।