নির্ধারিত সময়ের প্রায় চার দিন দেরী আসছে বর্ষা। সম্ভবত ৫ জুন কেরলে আসবে বর্ষা। তেমনই বার্তা দিয়েছে দিল্লির মৌসম ভবন। তবে কেরলে জুন থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত স্থায়ী হবে বর্ষা। স্বাভাবিক  নিয়মে কেরল বর্ষা আসে পয়লা জুন। কেরলে দেরিতে আসায় গোটা দেশেই বর্ষার আগমনে বিলম্ব হবে বলেই মনে করা হচ্ছে। মৌসম ভবন জানিয়েছে সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী শনিবার অর্থাৎ আগামিকালই আন্দামানে বর্ষা শুরু হত। কিন্তু

এবার সেখানেও  ২২ মে-র আগে বর্ষা ঢোকার কোনও পূর্বাভাস নেই। গোটা দেশে বর্ষা ঢুকবে আগামী ১৯ জুনের মধ্যেই। 

 

প্রাথমিকভাবে মৌসম ভাবন জানিয়েছে বঙ্গোপসাগরে ঘনীভূত ঘূর্ণঝড় আমফানের কারণে বর্ষা আসতে দেরী হচ্ছে। আবহাওয়া দফতর সূত্রের খবর শনিবার সন্ধ্যের দিকে আমফান ধেয়ে আসতে পারে। আগামী সোম ও মঙ্গলবার উপকূল সংলগ্ন এলাকায় এসে তা  নিম্নচাপে পরিণত হতে পারে বলেই মনে করেছে আবহাওয়াবিদরা। আমফানের কারণে দুই বাংলায়  বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস রয়েছে। উপকূলবর্তী জেলাগুলিতে অতিভারী বৃষ্টি হতে পারে বলেও জানান হয়েছে। আমফানের কারণে ওড়িশার ১২ উপকূলবর্তী জেলায় সতর্কতা জারি করা হয়েছে। 

আরও পড়ুনঃ করোনা সংকটের জেরে কি ১৩ শতাংশ কর্মী সংকোচন জোমাটেতে, মাস মাইনেও পড়তে চলেছে কোপ ...

আরও পড়ুনঃ বাংলায় ফিরতে মরিয়া অভিবাসী শ্রমিকরা, মুখ্যমন্ত্রীর সবুজ সংকেতের অপেক্ষায় ১২০ জন, নয়ডা থেকে হাঁটছেন ২...


তবে বর্ষা দেরিতে এলেও  বৃষ্টিপাতের পরিমাণ স্বাভাবিক থাকবে বলেই মনে পূর্বাভাসে বলা হয়েছে। গোটা দেশেই ৭৫ শতাংশ বৃষ্টিপাত হবে বলে জানিয়েছে মৌসম ভাবন।নতুন এই হিসেব অনুযায়ী দেশের রাজধানী দিল্লিকে বর্ষার জন্য আগামী ২৭ জুন পর্যন্ত অপেক্ষা করে থাকতে হবে। মুম্বই কলকাতায় বর্ষা আসবে আগামী ১০ অথবা ১১ই জুন।  দেশ থেকে বর্ষা বিদায় নেওয়ার কথা আগামী ১৫ই অক্টোবর।