সারা বিশ্ব করোনা সংক্রমণে কাবু। এদেশেও বেড়েই চলেছে আক্রান্তের সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছে ১,৫৩৩ জন। যা একদিনে এদেশে আক্রান্তের সংখ্যা নতুন রেকর্ড গড়েছে। এর সঙ্গে ভারতে করোনা সংক্রমণের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৭,৬১৫। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ৩৬ জনের। ফলে দেশে মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৫৫৯। এই অবস্থায় তেলেঙ্গনায় লকডাউনের মেয়াদ বাড়িয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাওয়ের সরকার।

গত ১৪ এপ্রিল এদেশে ২১ দিনের লকডাউন শেষ হয়েছে। সেদিনই জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণে ৩ মে পর্যন্ট সারা দেশে ফের দ্বিতীয়য় দফায় লকডাউনের ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। লকডাউনের সেই সময়সীমা এবার নিজের রাজ্যে বাড়িয়েদিলেন তেলেঙ্গনার মুখ্যমন্ত্রী। রবিবার ৭ মে পর্যন্ত রাজ্যে লকডাউনের মেয়াদ বাড়িয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্তের কথা জানান কেসিআর।

লকডাউনে গৃহবন্দি মানুষ, জনশূণ্য রাস্তায় নিশ্চিন্তে ঘুমোচ্ছে পশুরাজের পরিবার, ভাইরাল হল ছবি

ভ্যাকসিন না পাওয়া পর্যন্ত চলবে লকডাউন, করোনা মোকাবিলায় সিদ্ধান্তের পথে রানির দেশ

করোনার থাবায় এবার ভেস্তে যাচ্ছে অমৃত যোগ, গৃহবন্দি বৈশাখে আম হারা জনতা

সাংবাদিক সম্মলেন তেলেঙ্গনার মুখ্যমন্ত্রী বলেন, "আমরা রাজ্যে লকডাউনের মেয়াদ বাড়িয়ে ৭ মে করছি। সুতরাং লকডাউন উঠবে ৮ মে। " কেসিআর আরও বলেন, রাজ্যের পরিস্থিতি পর্যালোচনা করতে আগামী  ৫ মে ফের বৈঠকে বসবে তেলেঙ্গনার মন্ত্রিসভা। 

 ২০ এপ্রিল থেকে কেন্দ্র বেশকিছু ক্ষেত্রে লকডাউনে ছাড় দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। কিন্তু কে চন্দ্রশেখর রাও স্পষ্ট করে দেন,  রাজ্যবাসীর স্বাস্থ্যের কথা ভেবে, লকডাউনে তেলেঙ্গনায়  কোনওরকম ছাড় দেবে না প্রশাসন। জারি থাকবে রাতের কারফিউ। এমনকি  খাবার সরবরাহকারী মোবাইল অ্যাপগুলিকেও সোমবার থেকে চালু করার অনুমতি দেওয়া স্থগতি রাখল কেসিআর প্রশাসন।

বর্তমানে তেলেঙ্গনায় করোনা সংক্রমণের সংখ্যা ৮৫৮। মৃত্যু হয়েছে ২১১ জনের। ইতিমধ্যে রাজ্যের ৪ট জেলা ওয়ারঙ্গাল, ইদাদ্রি ভদ্রাদি, সিদ্দিপেট এবং ওয়ানাপার্থ করোনা ফ্রি বলে ঘোষণা করেছন মুখ্যমন্ত্রী।