মহারাষ্ট্রে মহাচমক, অর্থাৎ অজিত পওয়ারের এনসিপি-র সমর্থনপত্রের জোরে বিজেপি সরকার গঠন করার পর ৭২ ঘন্টা কেটে গিয়েছে। আর যত সময় যাচ্ছে ততই একটু একটু করে খেলা ঘুরছে। মঙ্গলার উপমুখ্যমন্ত্রীর পদ অজিত পওয়ারের পদত্যাগের পর, আস্থা ভোটের আগেই মুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে কি পদত্যাগ করবেন দেবেন্দ্র ফড়নবিশ-ও? জল্পনা উস্কে দিয়েছেন বিজেপির ব্রহ্মা-বিষ্ণু-মহেশ্বর।

এদিন, অজিত পওয়ারের পদত্যাগের খবর প্রকাশ পাওয়ার পরই সংসদে প্রধানমন্ত্রীর চেম্বারেই জরুরি বৈঠকে বসেন নরেন্দ্র মোদী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তথা বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ ও বিজেপির কার্যনির্বাহি সভাপতি জেপি নাড্ডা। মহারাষ্ট্রে বিজেপির পরবর্তী পদক্ষেপ নির্ধারণ করতেই এই বৈঠক, সেই বিষয়ে রাজনৈতিক মহল একপ্রকার নিশ্চিত। জল্পনা শুরু হয়েছে তবে কি দেবেন্দ্র ফড়নবিশও পদত্যাগ করবেন?   

জানা গিয়েছে মঙ্গলবারই বিকেলে সাংবাদিক সম্মেলন করবেন মহারাষ্ট্রের মুখ্য়মন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবিশ। সেখানেই হয়ত বড় ঘোষণা বতে পারে।

সোমবার সন্ধ্যাবেলাই নিজেদের পক্ষে ১৬২ জন বিধায়কের শক্তি দেখিয়েছে সিবসেনা-এনসিপি-কংগ্রেস। একে একে এনসিপির সব বিধায়কই শরদ পওয়ারের ছাতার তলায় ফিরে এসেছেন। তারপর মঙ্গলবার সকালে আদালতও বুধবার বিকেলের মধ্যে আস্থাভোট আয়োজনের নির্দেশ দিয়েছে। দুপুরে পদত্যাগ করলেন অজিত পওয়ার। সব মিলিয়ে বিজেপির পাল্লা ক্রমেই হাল্কা হচ্ছে। তাই দেবেন্দ্র পদত্যাগই সম্মানজনক পথ বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।