দাবানলের করালগ্রাসে ভস্মীভূত হয়ে গেল উত্তরাখণ্ডের বিস্তীর্ণ বনভুমি। একেই মে মাসের প্রবল দাবদাহ আর এরই মধ্যে পুড়ে ছাই হয়ে গেল উত্তরাখণ্ডের বিস্তীর্ণ বনাঞ্চল। 

বন দফতর সূত্রে খবর, মঙ্গলবার গোটা উত্তরাখণ্ড জুড়ে প্রায় ৯৪টি দাবানলের খবর পাওয়া গিয়েছে। বিস্তৃত বনাঞ্চলের প্রায় ১৬১ হেক্টর জমিতে নিমেষে ছড়িয়ে পড়ে আগুন। এর ফলে নষ্ট হয়ে গিয়েছে জঙ্গলের বহু দামি গাছ। ফলে বন দফতরের ক্ষতি হয়েছে প্রায় ৩২,৪৩৫ লক্ষ টাকা। তবে এই দাবানলের জেরে সবথেকে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে কুমায়ুনের বনভুমি অঞ্চল। এই বছরে এখনও পর্যন্ত যতগুলি দাবানল হয়েছে তাতে শুধুমাত্র কুমায়ুন অঞ্চলের ১২০০ হেক্টর বনাঞ্চলই ভস্মীভূত  হয়ে গিয়েছে। তবে কুমায়ুন ছাড়াও দাবানলের খবর পাওয়া গিয়েছে আলমোরা, নৈনিতাল, পউরি গাড়ওয়াল, দেরাদুন এবং তেহরি অঞ্চল থেকেও। আলমোরায় দাবানলের জেরে ভস্মীভূত  হয়েছে প্রায় ১৮৯ হেক্টর জমি। নৈনিতালে ভস্মীভূত জমির পরিমাণ ১৬৮ হেক্টর।   

আরও পড়ুন- দীর্ঘ ৩১ মাস খাদ্য-পানীয় ছাড়া মাঝ সমুদ্রে ভেসে চলেছে দুই ভারতীয়

সূত্রের খবর, ক্ষতিগ্রস্ত এলাকাগুলিতে ধোঁয়ার পরিমাণ এতটাই বেশি যে, সেখানে উদ্ধারকার্য চালানোর জন্য হেলিকপ্টার পাঠানো সম্ভব হচ্ছে না। তবে দাবানল নিয়ন্ত্রণে আনতে সবরকমের চেষ্টাই চালাচ্ছে উত্তরাখণ্ড বন দফতরের কর্মীরা।