গত কয়েকদিন ধরে উত্তর ভারতে ভূমিকম্পের খবর পাওয়া যাচ্ছে। সোমবারও কেঁপেছে দেশের রাজধানী। এবার পালা ছিল জম্মু-কাশ্মীরের। মঙ্গলবার সকাল সোয়া আটটা নাগাদ কম্পন অনুভূত হয় উপত্যকায়। রিখটার স্কেলে কম্পনের মাত্রা ছিল ৩.৯। শ্রীনগরের ১৫  কিলোমিটার উত্তরপূর্বে ছিল ভূমিকম্পের এপি সেন্টার। উৎসস্থল ভূপৃষ্ঠের ১০ কিলোমিটার গভীরে।

ভূমিকম্প নিয়ে যখন আতঙ্ক রাজ্যবাসী তখন বড়সড় সাফল্য পেল সেনা। নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর উত্তর কাশ্মীরের কেরান সেক্টর থেকে প্রচুর পরিমাণে অস্ত্রশস্ত্র উদ্ধার করল তারা। 

আরও পড়ুন: ২ বছর আগে ফিরেছিলেন ভিটেতে, সরকারের অনুগত হওয়ার চরম শাস্তি পেলেন কাশ্মীরি পণ্ডিত

গোপন  সূত্রে খবর পেয়ে নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর কেরান গ্রাম এবং সংলগ্ন এলাকায় যৌথ অভিযান শুরু করে কুপওয়ারা পুলিশ এবং ভারতীয় সেনার ৬ নম্বর রাষ্ট্রীয় রাইফেলস।কাশ্মীরে জোনের আইজি বিজয় কুমার জানান, একটি জায়গায় প্রচুর অস্ত্র জড়ো করা ছিল। সেখান থেকে পাঁচটি একে-৪৭ রাইফেল, ১৫ টি একে ম্যাগাজিন, ৪৪৩ রাউন্ড গুলি, দুটি আন্ডার ব্যারেল গ্রেনেড লঞ্চার, ৫৭ টি আন্ডার ব্যারেল গ্রেনেড লঞ্চারের গ্রেনেড, ছ'টি নাইন এমএম পিস্তল, ১২ টি নাইন এমএম পিস্তলের ম্যাগাজিন, ৭৭ টি নাইন এমএম পিস্তল রাউন্ড, ১৫ টি হ্যান্ড গ্রেনেড এবং দুটি একে স্লিং উদ্ধার করা হয়েছে।

 

পাকিস্তান থেকে অবৈধ ভাবে এই অস্ত্র পাচার করা হয়েছিল। বড়সড় হামলা করতেই এই আগ্নেয়াস্ত্র জড়ো করেছিল জঙ্গিরা বলেই মনে করছে বাহিনী। এদিকে লস্কর-ই-তইবার সঙ্গে সম্পর্ক থাকা এক ব্যক্তিকে বারামুল্লা থেকে গ্রেফতার করেছে যৌথ বাহিনী। ইরফান আহমেদ ওয়ানি নামে ওই ব্যক্তির  বাড়ি শাতলু রাফিয়াবাদে। তার থেকে একটি চিনা পিস্তল, একটি ম্য়াগাজিন, চার রাউন্ড গুলি  উদ্ধার করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: গত ৯ দিনে নেই কোনও মৃত্যুর খবর, এশিয়ার বৃহত্তম বস্তি করোনা লড়াইয়ে পথ দেখাচ্ছে দেশকে

এদিকে গত কয়েকদিনে বারবার সংঘর্ষ বিরতি লঙ্ঘন করে মর্টার ছুড়েছে পাকিস্তান। মঙ্গলবার উরি সেক্টরে নব্যা গ্রামে উড়ে আসা এমনি মর্টার শেল নষ্ট করল ভারতীয় সেনা।