সময়টা ভাল যাচ্ছে না বিখ্যাত সাংবাদিক অর্ণব গোস্বামীর। এবার রিপাব্লিক টিভি চ্যানেলের  সম্পাদকের বিরুদ্ধে উঠল সাম্প্রদায়িক বিদ্বেষ ছড়ানোর অভিযোগ। মুম্বইয়ের পিধোনী থানায় বিষয়টি নিয়ে ইতিমধ্যে এফআইআর দায়ের হয়েছে। তার পরেই অর্ণবের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করেছে মুম্বই পুলিশ। অর্ণব গোস্বামীর পাশাপাশি তাঁর টিভি চ্যানেল রিপাব্লিকের বিরুদ্ধেও দায়ের হয়েছে এফআইআর।

অর্ণবের বিরুদ্ধে এই এফআইআর দায়ের করেছেন রাজা এডুকেশনাল ওয়েলফেয়ার সোসাইটির সেক্রেটারি এবং দক্ষিণ মুম্বাইয়ের নুল বাজারের বাসিন্দা ইরফান আবুবকর শেখ। তাঁর অভিযোগ, গত ১৪ এপ্রিল বান্দ্রাতে অভিবাসী শ্রমিকরা  বিক্ষোভ দেখায়। এই ঘটনার  সাথে বান্দ্রা মসজিদের কোনো সম্পর্ক না থাকা সত্ত্বেও এই মসজিদকে কেন্দ্র করে মুসলিম সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে ঘৃণা ছড়ানোর চেষ্টা করেছেন অর্ণব গোস্বামী।

আরও পড়ুন: বিশ্বের দরবারে মোদীর ভাষণ, হাইড্রোক্লিক্লোরোকুইনের পর জানাবেন মহামারীর বিরুদ্ধে লড়াইয়ের কৌশল

ইরফান আবুবকর শেখ এফআইআরে উল্লেখ করেছেন, হিন্দি সংবাদমাধ্যম রিপাব্লিক ভারতে অভিবাসী শ্রমিকদের বিক্ষোভের একটি ভিডিও ফুটেজ দেখানো হয়। তখন অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করছিলেন অর্ণব গোস্বামী। সেখানে অর্ণবকে বলতে শোনা যায়, "কিছু সময় আগে মুম্বাইয়ের জামা মসজিদের পাশে হঠাৎ করে হাজার লোক জড়ো হয়। মসজিদের কাছে কে এতো ভিড় জড়ো করেছেন? লকডাউনের সময়েও মসজিদের কাছে ভিড় কেন জমেছে?" সঞ্চালকের এই মন্তব্য মুসলিমদের বিরুদ্ধে ঘৃণা তৈরি করছে বলে অভিযোগ করেন ইরফান শেখ। রিপাব্লিক টিভির বিরুদ্ধেও একই অভিযোগে মামলা দায়ের করেছেন তিনি।

পুলিশি-অভিযোগে তিনি জানিয়েছেন, "মসজিদের সাথে অভিবাসী শ্রমিকদের জড়ো হওয়ার কোনো সম্পর্ক নেই। মসজিদের বাইরে অনেকটা জায়গা থাকায় তারা সেখানে জড়ো হয়েছিল। কিন্তু অর্ণব ইচ্ছাকৃতভাবে মসজিদকে হাইলাইট করে শহরে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা লাগাতে চাইছেন।"

আরও পড়ুন: আমেরিকায় আক্রান্তের সংখ্যা ১১ লক্ষ, বছরের শেষেই আসছে করোনা ভ্যাকসিন, আশ্বাস দিলেন ট্রাম্প

অর্ণবের বিরুদ্ধে যে মামলা দায়ের হয়েছে তা স্বীকার করেছে পিছোনী থানা।  এক পুলিশ অফিসার জানিয়েছেন, "অর্ণব গোস্বামী ও রিপাব্লিক টিভির মালিকের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। তদন্ত চলছে। প্রমাণ স্বরূপ ওইদিনের শোয়ের ভিডিও ফুটেজ সংগ্রহ করা হয়েছে।"

এর আগে গত ২৭ এপ্রিল মহারাষ্ট্রের পালঘর গণহত্যা এবং কংগ্রেসনেত্রী সোনিয়া গান্ধীর বিরুদ্ধে ‘অবমাননাকর’ মন্তব্যের প্রেক্ষিতে ১২ ঘন্টারও বেশি সময় ধরে পুলিশি জেরার মুখে পড়তে হয়েছিল রিপাব্লিক টিভির সম্পাদক অর্ণব গোস্বামীকে। পালঘরের গণহত্যাকান্ডে সোনিয়া-যোগ রয়েছে অর্ণবের এমন মন্তব্যর পরই মহারাষ্ট্রের জ্বালানি বিষয়ক মন্ত্রী নীতিন রাউত তাঁর বিরুদ্ধে নাগপুর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।