মুম্বই পুলিশ ক্রমশই চাপ বাড়াচ্ছে রিপাব্লিক টিভির নেটওয়ার্কের ওপর। সংস্থায় কর্মরত প্রতিটি সাংবাদিক ও কর্মীর সম্বন্ধে বিস্তারিত জানতে চাওয়া হয়েছে। পাশাপাশি জানতে চাওয়া হয়েছে প্রতিষ্ঠার পর থেকে এপর্যন্ত লেনদেন সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য। সূত্রের খবর মুম্বই পুলিশের পক্ষ থেকে ৯১ ধারার নোটিশ পাঠান হয়েছে সংস্থার অফিসে। সংস্থার পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে টিআরপি মামলায় ধীরে ধীরে গুরুত্ব হারাচ্ছে। তাই নতুন ভাবে এই সংস্থাটিকে সমস্যায় ফেলার চক কষছেন মুম্বই পুলিশ কমিশনার পরম বীর। 

রিপাব্লিক টিভির পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে মুম্বই পুলিশ, কফি ভেন্ডিং মেশিন থেকে শুরু করে বাগান, শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত যন্ত্র, আসবাব  থেকে শুরু করে টয়লেট পেপারেরও হিসেব চাওয়া হয়েছে। মেকআপ সামগ্র, সংবাদ সঞ্চালকদের পোষাকেরও হিসেব চাওয়া হয়েছে। প্রতিষ্ঠা থেকে এপর্যন্ত যা যা লেনদেন হয়েছে তার সমস্ত হিসেব চাওয়া হয়েছে বলেও দাবি করা হয়েছে। আর সেই হিসেব নিকেশ মাত্র ১২ ঘণ্টার মধ্যে পাঠাতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছ।

 ফেসবুকের আঁখি দাসকে জিজ্ঞাসাবাদ সংসদীয় কমিটির, হাজিরা এড়িয়ে গল অ্যামাজন ..

রিপাব্লিক বনাম টাইমস নাউ মামলা, দিল্লি আদালতের রায়ে সাময়িক স্বস্তিতে অর্ণব গোস্বামী ..


সংস্থার পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে মুম্বই পুলিশের এই আচরণ সংবাদ মাধ্যমের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ  করার নামান্তর মাত্র। একটি সূত্র বলছে কর্মীদের ওপর চাপ বাড়াতে সমস্ত কর্মী ও সাংবাদিকদের বিষয়ে বিস্তারিত তথ্যও চেয়ে পাঠান হয়েছে মুম্বই পুলিশের পক্ষ থেকে। আর সেখানে কর্মীদের প্রভিডেন্টফান্ডের বিবরণ আর মেডিক্লেমের বিরবণও চাওয়া হয়েছে। মুম্বই পুলিশের এই আচরেণের তীব্র নিন্দা করা হয়েছে সংস্থার পক্ষ থেকে। পাশাপাশি বলা হয়েছে সংস্থাটিকে হয়রান করতেই এই পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। মুম্বই পুলিশ রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রনোদিত হয়েই এই কাজ করছে বলেও অভিযোগ করা হয়েছে।