Asianet News BanglaAsianet News Bangla

'লিভ-ইন' বাড়বে লাফিয়ে, মেয়েদের বিয়ের বয়স না বাড়াতে মোদীকে চিঠি মুসলিম লিগের

  •  মেয়েদের বিয়ের বয়স না বাড়ানোর জন্য মোদীকে চিঠি 
  • মেয়েদের বয়েস বাড়লে 'অবৈধ সম্পর্ক'  বেড়ে যাবে
  • শিশু বিবাহ নিষিদ্ধকরণ,মেয়েদের বিয়ের বয়েস বাড়ানো অন্যায় 
  • সওয়াল করেন সংগঠনের সচিব পিকে নুরবানা রশিদ 
Muslim leagues urges PM Modi not to raise minimum of marriage age for women RTB
Author
Kolkata, First Published Oct 24, 2020, 4:10 PM IST

 মেয়েদের বিয়ের বয়স না বাড়ানোর জন্য মোদীকে চিঠি দিল মুসলিম লিগের মহিলা শাখা। মেয়েদের বৈধ বিয়ের বয়েস ১৮ থেকে বাড়িয়ে ২১ বছর করার প্রস্তাবের তীব্র বিরোধিতা করে হস্তক্ষেপ চাইল  মুসলিম লিগের মহিলা শাখা ইন্ডিয়ান ইউনিয়ন উইমেন লিগ। 

আরও পড়ুন, 'সব কন্যাকেই দুর্গার মত সম্মান প্রদান করা দরকার', নারী শক্তির আলো ছড়িয়ে দিলেন মোদী

 

Muslim leagues urges PM Modi not to raise minimum of marriage age for women RTB

 

আরও পড়ুন, মহাঅষ্টমীতে সকলকে শুভেচ্ছা মোদীর, দেবী দুর্গাকে নিয়ে কী বললেন প্রধানমন্ত্রী

 

জৈবিক-সামাজিক প্রয়োজনীয়তা


মেয়েদের বয়েস বাড়লে 'লিভ-ইন-সম্পর্ক ও 'অবৈধ সম্পর্ক'  বেড়ে যাবে বলে সওয়াল করেন সংগঠনের সচিব পিকে নুরবানা রশিদ। এবং বয়স বাড়লে যে 'সমূহ বিপদের' আশঙ্কা এমনটাই জানান তিনি। এবং এব্য়াপারে হস্তক্ষেপ চেয়ে চিঠিও দেন মোদীকে। এমন গুরুত্বপূর্ণ ইস্য়ুতে 'তড়িঘড়ি করে সিদ্ধান্ত' নিতে বিরত থাকতে বারণ করেছেন। তিনি এর বিরোধিতা করে বলেছেন যখন অনেক উন্নয়নশীল দেশ জৈবিক-সামাজিক প্রয়োজনীয়তার তাগিদে ২১ থেকে নামিয়ে ১৮  বছর করেছে সেসময় ভারতীয় মেয়েদের পক্ষে বিয়ের বয়েস বাড়িয়ে হটকারী সিদ্ধান্ত নেওয়া ঠিক হবে বলেই দাবি সংগঠনের।

 

Muslim leagues urges PM Modi not to raise minimum of marriage age for women RTB

 

আরও পড়ুন, 'ভোটে জিতলে ভ্যাকসিন ফ্রি', বিজেপি-র প্রতিশ্রুতিতে কী বলছে বিহারবাসী

 

শিশু বিবাহ নিষিদ্ধকরণ রুপান্তর না করে  মেয়েদের বিয়ের বয়েস বাড়ানো অন্যায়


অপরদিকে, ২০০৬ সালের শিশু বিবাহ নিষিদ্ধকরণ রুপান্তর না করে  মেয়েদের বিয়ের বয়েস বাড়ানো অন্যায় বলেও দাবি করেন  সংগঠনের সচিব পিকে নুরবানা রশিদ। এখানেই শেষ নয় উদাহরণ স্বরুপ সাম্প্রতিক কালের এক সমীক্ষার রিপোর্ট টেনে বলেন, গ্রামীণ এলাকায় ১৮ বছর হওয়ার আগেই ৩০ শতাংশ মেয়ের বিয়ে হয়ে যাচ্ছে। তাহলে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া অর্থহীন বলে দাবি তাঁর।

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios