বড়দিনে কৃষকদের অ্যাকাউন্টে কিষাণ সন্মান নিধির দ্বিতীয় দফার কিস্তি ঢোকালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। মোট ১৮ হাজার কোটি টাকা ব্যাঙ্কে ট্রান্সফার করলেন এদিন প্রধানমন্ত্রী। বিভিন্ন রাজ্যের কৃষকদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে কথাও বলেন এদিন তিনি। তালিকা থেকে বাদ পড়ল কেবল বাংলার কৃষক। অর্থ্যমূল্য ঘোষণা করার পরই মোদীর নিশানাতে বাংলা। 

আরও পড়ুন- ৯ কোটি কৃষকের অ্যাকাউন্টে ১৮০০০ কোটি টাকা, বিক্ষোভের মধ্যেই মোদী নিলেন বড় পদক্ষেপ

কেন বাংলার কৃষকেরা এই তালিকা থেকে বাদ পড়লেন, সেই প্রসঙ্গ তুলে ধরে একাধিক তোপ দাগলেন নরেন্দ্রমোদী। মমতা সরকারকে নিশানা করে তিনি বললেন, বাংলার কৃষকেরা রাজনীতির শিকার। রাজনৈতিক কারণেই এই সুবিধা থেকে বঞ্চিত হতে হল ২৩ লক্ষ কৃষককে। আর এই পরিস্থিতির জন্য দায়ী বাংলার মুখোমন্ত্রী মমতা মন্দ্যোপাধ্যায়। 

এদিন কনফারেন্স থেকে বাংলাকে নিশানা করে নরেন্দ্র মোদীর তুরুপের তাস কৃষাণ। বাংলা থেকে হাজার হাজার কৃষক আবেদন করেছিল এই সুবিধা পাওয়ার জন্য। কিন্তু সেই তালিকাকে সন্মতি দেয়নি রাজ্য। তাই তাদের অ্যাকাউন্টে টাকা ঢোকানো সম্ভব হল না। দুঃখ প্রকাশ করে এদিন মোদী জানান, কেন বাংলার কৃষকেরা বঞ্চিত হল, কেন তারা এখনও বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন না। 

 

কিষাণকে হাতিয়ার করে এদিন নরেন্দ্রমোদী বাংলার পরিস্থিতি নিয়ে মুখ খোলেন। জানান, বাংলার বর্তমানে কী অবস্থা হয়ে তা ভেবে দেখা উচিৎ। ১৫ বছর আগেও এই ছবিটা ছিল ভিন্ন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে প্রশ্ন করেন মোদী, কেন বাংলার কৃষকদের উন্নতির কথা ভেবে এই সুবিধে নিলেন না তিনি! ১ লক্ষ ১০ হাজার টাকা অর্থ সুবিধে পেয়েছেন কৃষকেরা। 

পাশাপাশি তিনি আরও বলেন জমি নিয়ে ভুল বোঝানো হচ্ছে কৃষকদের। এর পেছনে কোনও দুর্নীতি বা কাট মানি নেই। ভাষণে সাফ জানালেন মোদী। তিনি আরও প্রশ্ন তোলেন, কীভাবে বাংলা পঞ্চাবের কৃষক আন্দোলনের পাশে দাঁড়াচ্ছে! লাইভে এসে সুর চরালেন প্রধানমন্ত্রী।