দ্বিতীয়বারের জন্য প্রধানমন্ত্রী হিসাবে শপথ গ্রহণের পর প্রথম বিদেশ সফরে মলদ্বীপ গিয়ে সেখানকার পার্লামেন্টে ভাষণ দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এদিনের ভাষণে সন্ত্রাসবাদ ইস্যুতে সরব হন তিনি। আবারও নাম না করে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন মোদী। 

তাঁর নিশানা যে পাকিস্তানের দিকেই, তাঁর এদিনের ভাষণ থেকে সেকথা স্পষ্ট। মলদ্বীপের পার্লামেন্ট 'দ্য মজলিশ'-এ দাঁড়িয়ে এদিন তিনি বলেন যে, সন্ত্রাসবাদ কখনওই একটা দেশের জন্য নয়, বরং গোটা সভ্যতার পক্ষেই মারাত্মক ক্ষতিকর। নাম না করেই তিনি পাকিস্তানকে তোপ দেগে বলেন, এচা খুবই দুর্ভাগ্যজনক যে, মানুষ এখনও ভাল এবং খারাপের মধ্যে পার্থক্য অনুধাবন করতে পারেন না। সবথেকে দুঃখজনক বিষয় হল এটাই যে, কিছু কিছু রাষ্ট্র রয়েছে যারা জঙ্গিদের মদত যোগাচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রীর প্রচারে শুধুই মিথ্যাচার, মোদীকে এক হাত নিলেন রাহুল

প্রসঙ্গত এর এক দিন আগেই পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান আলোচনায় বসতে চেয়ে চিঠি লেখেন নরেন্দ্র মোদীকে। সাম্প্রতিককালে পুলওয়ামা হামলাকে কেন্দ্র করে ভারত-পাক সম্পর্ক যে তলানিতে এসে ঠেকেছিল, সেকথা বলাই বাহুল্য। আর হয়তো সেই কারণেই দ্বিপাক্ষিক সমস্যার সুরাহা চেয়ে নমোকে চিঠি লিখেছিলেন ইমরান। কিন্তু মলদ্বীপের মাটিতে মোদীর এমন বক্তব্য যে পাক প্রধানমন্ত্রীর আশায় জল ঢেলে দিল, সেকথাই মনে করছেন বিশিষ্ট মহল।