সোমবার সকাল সাড়ে নটায় রাষ্ট্রপতি ভবনে ৪৭তম প্রধান বিচারপতি হিসেবে শপথ নিলেন বিচারপতি শরদ অরবিন্দ বোবদে। প্রধান বিচারপতি হিসেবে শুরুতেই কিন্তু বিচারপতি বোবদে বুঝিয়ে দিয়েছেন তিনি অনেকটাই ব্যতিক্রমী। এর আগে পর্যন্ত ভারত, প্রধান বিচারপতি হিসেবে যাঁদের পেয়েছে, তাঁদের থেকে তিনি অনেকটাই আলাদা।   

আরও পড়ুন - শপথ নিলেন বিচারপতি শরদ অরবিন্দ বোবদে, চিনে নিন ভারতের ৪৭তম প্রধান বিচারপতিকে

প্রধান বিচারপতি হিসেবে শপথ নেওয়ার আগেই সংবাদ সংস্থা এএনআই-কে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে বিচারপতি বোবদে জানিয়েছেন, ভারতের বিচার ব্যবস্থা খুবই উন্নত। তবে তিনি সামান্য কিছু পরিবর্তন করতে চান। কী ধরণের পরিবর্তন ? প্রধান বিচারপতি বোবদে জানিয়েছেন, সময় এসেছে আদালত কক্ষে আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স (এআই) বা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার মতো অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার শুরু করার। তবে শুদু প্রযুক্তিগত পরিবর্তনই নয়, বিচারপতি বোবদে আরও কিছু স্বল্পমেয়াদী ও দীর্ঘমেয়াদী ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ-ও করেছেন। দীর্ঘমেয়াদী ব্যবস্থা হিসেবে তিনি পরামর্শ দিয়েছেন আইনী শিক্ষায় জোর দেওয়ার উপরে। এছাড়া স্বল্পমেয়াদী ব্যবস্থা হিসেবে আদালতে আরও ভাল কর্মী নিয়োগ, উন্নত ব্যবস্থা গ্রহণের পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।

আরও পড়ুন - পরবর্তী প্রধান বিচারপতি কে, উত্তরসূরি হিসাবে এসএ বোবদে-কে পছন্দ গগৈ-এর

এদিন সকাল সাড়ে নটার কিছু আগে রাষ্ট্রপতি ভবনে এসে উপস্থিত হন বিচারপতি শরদ অরবিন্দ বোবদে। বিশেষ বুলেটপ্রুফ গাড়িতে নিরাপত্তাকর্মীদের কড়া প্রহরায় রাষ্ট্রপতি ভবনে আসেন ভারতের না প্রধান বিচারপতি। কিন্তু একদিন তিনি বুলেটপ্রুফ গাড়ি নয়, চড়তেন রয়্যাল এনফিল্ড বুলেট। এখন আর সম্ভব না হলেও, প্রধান বিচারপতি জানিয়েছেন বরাবরই তিনি বাইক চালাতে ভালবাসেন। ১৯৭৮ সালে মহারাষ্ট্রে তিনি একজন সাধারণ আইনজীবী হিসেবেই কর্মজীবন শুরু করেছিলেন। সেই সময় ওই বুলেটই ছিল তাঁর বাহন।

আরও পড়ুন - বোবদেই হচ্ছেন ভারতের পরবর্তী প্রধান বিচারপতি, নিয়োগে সায় দিলেন রাষ্ট্রপতি

বিচারপতি হিসাবে এস এ বোবদে-র কর্মজীবনের শুরু হয়েছিল ২০০০ সালের ২৯ মার্চ। প্রথমে বম্বে হাইকোর্ট-এর অতিরিক্ত বিচারক হিসাবে নিযুক্ত হয়েছিলেন। এরপর ২০১২ সালের ১ অক্টোবর তিনি মধ্যপ্রদেশ হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি হন। সুপ্রিম কোর্টের বিচারক পদে উন্নীত হন ২০১৩ সালের ১২ এপ্রিল। ২০২১ সালের ২৩ এপ্রিল অবসর নেবেন প্রধান বিচারপতি বোবদে। অর্থাৎ ভারতের প্রধান বিচারপতি হিসেবে তিনি ১৮ মাস নিযুক্ত থাকবেন।

আরও পড়ুন - আজই সুপ্রিম কোর্টে শেষদিন রঞ্জন গগৈ-এর, শেষ দিনেও দেবেন দশটি মামলার রায়