দেশের ১০টি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্ক সংযুক্তিকরণের ফলে চারটি ব্যাঙ্ক গড়ে ওঠার কথা ঘোষণা করেছিলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ। এরপরই ব্যাঙ্ক শিল্পের সঙ্গে যুক্ত কর্মচারী এবং অফিসাররা কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তের তীব্র বিরোধীতা করেন। শুধু তাই নয়, ব্যাঙ্ক ইউনিয়নগুলির তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল, কেন্দ্রের তরফে নেওয়া এই ব্যাঙ্ক সংযুক্তিকরণের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে তীব্র আন্দোলনে নামবেন তাঁরা। 

এদিন চেন্নাইয়ে আয়কর, জিএসটি, আমদানি শুল্ক দফতরের আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠকে বসেছিলেন নির্মলা সীতারমণ। এরপরই একটি সাংবাদিক বৈঠকে এসে ব্যাঙ্কের কর্মী সংগঠনগুলিকে কর্মচারী ছাঁটাই নিয়ে প্রশ্নের উত্তর দেন তিনি। তিনি বলেন শুক্রবার তিনি যা যা বলেছেন সেগুলি আরও একবার মনে করে দেখা হোক। 

 

ব্যাঙ্ক সংযুক্তিকরণের বিরুদ্ধে আন্দোলনে কর্মীরা, সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাচ্ছে শিল্প মহল

মিশে যাচ্ছে দশটি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্ক, বড় ঘোষণা কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীর

৬ বছরে সর্বনিম্ন, আর্থিক বৃদ্ধির হার নামল ৫ শতাংশে

ব্যাঙ্ক সংযুক্তিকরণের জেরে কর্মী ছাঁটাইয়ের আশঙ্কা কার্যত উড়িয়ে দিলেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ। দশটি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্ক সংযুক্তিকরণের মাধ্যমে চারটি করা হলেও একজন কর্মচারীও কাজ হারাবেন না বলে জানিয়ে দিলেন তিনি। তিনি আরও বলেন যে, এই বিষয়টি তিনি ব্যাঙ্ক সংযুক্তিকরণের সিদ্ধান্ত ঘোষণার দিনই জানিয়ে দিয়েছিলেন। এদিন তিনি আরও অভিযোগ, ব্যাঙ্ক কর্মীদের চাকরি যাওয়ার আশঙ্কা নিয়ে ভুল তথ্য প্রদান করা হচ্ছে। তিনি আরও বলেন ব্যাঙ্ক সংযুক্তিকরণের পরও কোনও ব্য়াঙ্ক বন্ধ করে দেওয়া হবে না।