কেরলে তিন করোনা আক্রান্ত সুস্থ হয়ে  উঠেছেন। কিন্তু এদেশে নতুন করে প্রাদুর্ভাব ঘটেছে করোনা ভাইরাসের। দিল্লি ও হায়দরাবাদের দুই ব্যক্তির শরীরে পাওয়া গেছে  এই মারণ রোগের ভাইরাস। আর সেই কারণেই এখন দিশেহারা অবস্থা রাজধানী দিল্লি ও সংলগ্ন নয়ডার।  করোনা আতঙ্কের জেরে সাময়িক ভাবে বন্ধ করা হল নয়ডার একটি নামি ইংরেজি মাধ্যম স্কুলের ক্যাম্পাস। বাতিল করা হয়েছে স্কুলের সমস্ত পরীক্ষাও।

স্কুলের এক ষষ্ঠ শ্রেণির পড়ুয়ার বাবার শরীরে মিলেছে করোনা ভাইরাস। সম্প্রতি ইতালি থেকে ফিরেছেন তিনি। দেশে ফিরেই  দিল্লিতে ছেলের জন্মদিন উপলক্ষ্যে একটি পার্টির আয়োজন করেছিলেন তিনি। সেই পার্টিতে অতিথি হিসাবে উপস্থিত হয়েছিল স্কুলের একাধিক পড়ুয়া। বিষয়টি জানাজানি হতেই তড়িঘড়ি মঙ্গলবার থেকে স্কুল বন্ধের সিদ্ধান্ত নেয় কর্তৃপক্ষ।

আরও পড়ুন: হোলির পোশাক নিয়ে স্বামীর সঙ্গে ঝামেলা, রাগে ৬ মাসের মেয়েকে খুন করল মা

গত ২ মার্চ ওই ব্যক্তির শরীরে করোনা ভাইরাস মিলেছে। ইতালি থেকে সম্প্রতি দিল্লি ফিরেছেন তিনি। বর্তমানে রাম মনোহর লোহিয়া  হাসপাতালে তাঁর চিকিৎসা চলছে। আক্রান্ত ব্যক্তিকে কড়া পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে বলে স্বাস্থ্য মন্ত্রক সূত্রে জানান হয়েছে। 

আরও পড়ুন: রাজধানীতে মোদী-কেজরি সাক্ষাৎ, আলোচনায় উঠে এল দিল্লি হিংসা থেকে করোনা ভাইরাস

এদিকে মঙ্গলবার ওই স্কুলে জান স্বাস্থ্য দফতরের আধিকারিকরা। সেখানে দুই পড়ুয়ার থেকে নমুনা সংগ্রহ করেন তাঁরা। ইতিমধ্যে স্কুল বিল্ডিংটি শুদ্ধিকরণের কাজও শুরু করেছে স্বাস্থ্য দফতর। নয়ডায়  ১৩৫ নম্বর সেক্টরে অবস্থিত শ্রীরাম মিলেনিয়াম  স্কুল বন্ধ হতেই আশেপাশের স্কুলগুলিতেও আতঙ্ক ছড়িয়েছে। শিব নাদর স্কুল কর্তৃপক্ষও করোনা ভাইরাস  আতঙ্কের জেরে  ৯ তারিখ পর্যন্ত স্কুল বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।