বিয়ের কার্ড তো অনেক দেখেছেন, কিন্তু সেই বিয়ের কার্ডে যদি পাত্রীর নাম দেখেন মমতা ব্যানার্জী, তবে কেমন হয়? না ভুল পড়েননি। কার্ড ছাপা হয়েছে, বিয়ের তারিখও জানানো হয়েছে। ১৩ই জুন বিয়ে করতে চলেছেন মমতা ব্যানার্জী। পাত্রের নাম এ এম সোশালিজম। আকাশ থেকে পড়ছেন ? খুব স্বাভাবিক, তবে এই গল্পে একটা ছোট্ট টুইস্ট রয়েছে। 

যে বিয়ের কার্ড ভাইরাল হয়েছে, সেখানে পাত্রীর নাম পি মমতা ব্যানার্জী। পাত্রের নাম এ এম সোশালিজম। এখানেই পাত্রীর নাম দেখে বেশ ঘাবড়ে গিয়েছেন নেটিজেনরা। সোশ্যাল মিডিয়ার দেওয়াল জুড়ে ভাইরাল হয়ে গিয়েছে এই বিয়ের কার্ড। হবে নাই বা কেন। জাতীয় রাজনীতির অন্যতম মুখ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বাংলার মুখ্যমন্ত্রী। তাঁর নামে বিয়ের কার্ড ছাপা হলে, সে ভাইরাল না হয়ে যাবে কোথায়। 

নেটিজেনরা এতটাই বিভ্রান্ত হয়েছেন যে এই কার্ড ফটোশপ করা নাকি আসল, তাই বুঝে উঠতে পারছেন না। সোমবার এই কার্ডের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছাড়া হয়। আর দাবানলের মতো ছড়িয়ে পড়ে সেই কার্ডের ছবি। এতে সবচেয়ে অসুবিধায় পড়ে পাত্র পাত্রীর পরিবার। পাত্রের বাবার নাম লেনিন মোহন। তাঁর কাছে আসতে থাকে শয়ে শয়ে ফোন। জানতে চাওয়া হয় এই বিয়ে কি সত্যিই হচ্ছে। 

তামিলনাড়ুর সালেমে সিপিএমের জেলা সম্পাদক লেনিন। যে গ্রামে তাঁর বাস, সেই কাট্টুরে এই রকম নামের ছড়াছড়ি। কারোর নাম লেনিন, কারোর নাম রাশিয়া, মস্কো, ভিয়েতনাম, চেকোশ্লোভাকিয়া। সেখানে মমতা ব্যানার্জী নাম যে কারোর হতেই পারে, তা বলাই বাহুল্য। যাই হোক না কেন, গাঁটছড়া বাঁধতে চলেছেন মমতা ব্যানার্জী। বিয়ে হচ্ছে আমানিকোডালামপাট্টি গ্রামে। সবার নিমন্ত্রণ রইল কিন্তু...