যুদ্ধ বিরতি লঙ্ঘন করে আবারও অনুপ্রবেশের চেষ্টা করা হল জম্মু ও কাশ্মীর সীমান্তে। আর অনুপ্রবেশকারীদের সুবিধে করে দেওয়ার জন্য পাকিস্তান সেনা ইচ্ছেকৃত কেরান নিয়ন্ত্রণ রেখা এলাকায় গুলি চালায় বলে অভিযোগ। সেনা সূত্রে খবর, শুক্রবার দুপুরে কেরান সেক্টরের বিস্তীর্ণ এলাকায় গুলি মর্টার ও অন্যান্য আগ্নেয়াস্ত্র দিয়ে হামলা চালায় পাকিস্তান। পাল্টা জবাব দিয়েছে ভারত। 

সিএফভিগুলি কেরান থেকে উরি সেক্টর পর্যন্ত বৃহত্তর এলাকায় ছড়িয়ে পড়েছিল। চলতি সপ্তাহে এটি ছিল পাক জঙ্গিদের দ্বিতীয় অনুপ্রবেশের চেষ্টা। একইভাবে গত ৭-৮ নভেম্বর মাচাল সেক্টারে এভাবেই অনুপ্রবেশের চেষ্টা চালিয়েছিল পাকিস্তান। সেইসময়ও ভারতীয় সেনা বাহিনী পাক-জঙ্গিদের অনুপ্রবেশের চেষ্টা ব্যর্থ করে। পাশাপাশি তিনজন সন্ত্রাসবাদীকে নিকেশ করে। 

সেনা সূত্রে খবর শুক্রবার জম্মু ও কাশ্মীরের কেরান সেক্টর ছাড়াও যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করা হয়েছে আরও দুটি সেক্টরে। প্রথমে বন্দিপোরা জেলার গুরেজ সেক্টরের ইজমার্গে হামলা চালান হয়। তার মিনিটখানের পরেই কুপওয়ারা জেলার কেরান সেক্টপরে যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করে। এখানে সবথেকে বেশি সময় ধরে সিজফায়ার করা হয়েছিল বলে সেনা সূত্রে খবর। তৃতীয় ঘটনাটি ঘরে বারামুল্লার উরি সেক্টরে।  সেখানে ভারতীয় বাহিনীর দিকে গুলি চালান হয় পাকিস্তানের দিক থেকে। যদিও এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত হতহতের ঘটনা ঘটেনি। প্রতিটিক্ষেত্রে পাকিস্তানকে পাল্টা জবাব দিয়েছে ভারতীয় সেনা বাহিনী। তেমনই দাবি করছে সেনাবাহিনীর একটি সূত্র।