সীমান্তে ফের যুদ্ধবিরতির লঙ্ঘনের চেষ্টা করেছিল পাকিস্তান। আর এর প্রতিশোধ নিতেই ভারতীয় সেনা জওয়ানের হাতে নিহত হয় দুই পাকিস্তানি সেনা। ঘটনাটি ঘটে ১১ সেপ্টেম্বর। এরপর শনিবার নিহত দুই পাক সেনার মরদেহ উদ্ধার করে পাকিস্তানি সেনা। 

এদিন পাকিস্তানি সেনারা জম্মু ও কাশ্মীরের হাজিপুর সেক্টরে গিয়ে উপস্থিত হয় এবং সেখানে সাদা পতাকা প্রদর্শন করে তারা তাদের নিহত সেনাদের দেহ উদ্ধার করে। প্রসঙ্গত এই সাদা পতাকা প্রদর্শনের অর্থ হল আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত আত্মরক্ষামুলক প্রতীক চিহ্ন যার অর্থ আত্মসমর্পণ করা। একটি সর্বভারতীয় সংবাদ সংস্থার তরফ থেকে প্রকাশ করা হয়েছে তারই এক্সক্লুসিভ ভিডিও। দেখুন,-

 

প্লাস্টিক মুক্ত দেশ গড়ার ডাক, সিগারেটের বাট-সহ ১২ রকমের প্লাস্টিক নিষিদ্ধের পথে কেন্দ্র

চাহিদা মেটাতে বাধা অর্থের যোগান, কেন্দ্রের কাছে অতিরিক্ত ৪০ হাজার কোটির আবেদন বায়ুসেনার

দেশকে এক সূত্রে বাঁধতে পারে হিন্দি, জাতীয় হিন্দি দিবসে ফের ভাষা চাপানোর জল্পনা উস্কে দিলেন অমিত শাহ

বুধবার সীমান্তরেখার হাজিপুর সেক্টরে যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করেছিব পাকিস্তান। এর ফলেই পাল্টা আক্রমণ শানায় ভারতীয় সেনারা। ভারতীয় সেনার পাল্টা আঘাতে প্রাণ যায় দুজন পাক সেনার। তবে এতকিছুর পরেও পাকিস্তানের তরফে শনিবার ফের জম্মু ও কাশ্মীরের পুঞ্চ জেলার মেন্ধার সেক্টর এবং বালাকোটের কাছে যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন  করা হয়। সীমান্তে নিযুক্ত ভারতীয় সেনাও এর উপযুক্ত জবাব দিতে পেরেছে বলে জানা গিয়েছে। প্রসঙ্গত এর আগে ৮ সেপ্টেম্বর তারিখে জম্মু ও কাশ্মীরের  রাজৌরি জেলার নওশেরা এবং সুন্দের বানি সেক্টরে যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করেছিল পাকিস্তানি সেনা।