দ্বিতীয় দফায় ভোট গ্রহণের মধ্যেই তৃতীয় তথা শেষ দফার নির্বাচনে প্রচার  করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। মঙ্গলবার বিহারের দুটি এলাকায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর জনসভার কর্মসূচি রয়েছে। প্রথম জনসভা ফোব্রসগঞ্জে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন তিনি নিশ্চিত বিহারে দ্বিতীয় দফায় ক্ষমতা ফিরছে এনডিএ সরকরা। তিনি আরও বলেন তাঁর কাছে যে তথ্য রয়েছে তাতে স্পষ্ট যে বিহারের বাসিন্দারা দ্বিতীয় বারের জন্য এনডিএ নির্বাচতিত করতে চলেছে। তিনি আরও বলেন, বিহারের ভোটাররা সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্যটিতে আরও উন্নত করতে হবে। আর সেই কারণেই তাঁরা এনডিকে পুনরায় নির্বাচিত করতে চলেছেন। 

করোনাভাইরাসের মহামারির আবহেই ভোট গ্রহণ হচ্ছে বিহারে। মাহামারি শুরু হওয়ার পর এটাই প্রথম সবথেকে বড় ভোট প্রক্রিয়া। আর সেই কথা মাথায় রেখে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিহারের মানুষ গণতন্ত্রের প্রতি প্রবলভাবে দায়বদ্ধ। আর সেই কারণেই মহামারির মধ্য়েও তাঁরা বিপুল সংখ্যায় ভোট দিতে যাচ্ছেন। বিহারের মানুষের প্রশংসা করে তিনি বলেন স্থানীয়রা গোটা বিশ্বকে এই মহামারির সময়ও গণতন্ত্রের শক্তি ও গুরুত্ব বুঝিয়েছেন। তারপরই তিনি বলেন বিহারের মানুষের ভোট গণতন্ত্র ও দেশকে শক্তিশালী করবে। করোনাভাইরাস সংক্রান্ত স্বাস্থ্য বিধি মেনে ভোট গ্রহণ করার জন্য ভোট কর্মীদেরও ভূয়সী প্রশংসা করেন তিনি। মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী সভার কর্মসূচি যাদব অধ্যুষিত ও মুসলিম অধ্যুষিত এলাকায় রাখা হয়েছে।  

নির্বাচনী জনসভাতেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী নীতিশ কুমারের প্রশাংসা করেন। তিনি বলেন ডাবল ইঞ্জিন সরকার প্রত্যাবর্তেনর পর দ্রুতগতিতে রাজ্যের অগ্রগতি হবে তেজস্বী যাদব ও রাহুল গান্ধীকে কটাক্ষ করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দ্বৈত যুবরাজ বলেন। আর তার পাশে নীতিশ কুমারের প্রশংসা করে তিনি বলেন ডবল ইঞ্জিন সরকার।  পাশাপাশি পুরনো প্রসঙ্গ তুলেই তিনি বিরোধী রাজনীতিক দলগুলিতে আক্রমণ করেন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন, কিছু মানুষের সমস্যা রয়েছে কেন মোদী নির্বাচনে জয় লাভ করবেন। কিন্তু তাঁরা উন্নয়ন দেখেন না বলেই অভিযোগ করেন তিনি। পাশাপাশি তিনি বলেন আজ অভিজাতবাদ রাজনীতি পরাজিত হচ্ছে। গোটা দেশে গণতন্ত্র জয়লাভ করছে। করোঠ পরিশ্রম আর উন্নয়নের কাছে হেরে যাচ্ছে অহংকার।