পিএম কেয়ার ফান্ডকে রীতিমত বৈধতা দিল সুপ্রিম কোর্ট। মঙ্গলবার শীর্ষ আদালত সরাসরি জানিয়ে দিয়েছে পিএম কেয়ারস ফান্ডের সঞ্চিত অর্থ প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে স্থানান্তরিত করা যাবে না। পাশাপাশি এই সংক্রান্ত আবেদনটিও খারিজ করে দেয় সুপ্রিম কোর্ট। একই সঙ্গে শীর্ষ আদালতের পক্ষ থেকে  জানিয়ে দেওয়া হয়েছে পিএম কেয়ারস ফান্ড গঠন করা হয়েছে গণদাতব্য তহবিল হিসেবে। তবে কেউ চাইলে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে আর্থিক সাহায্য করতেই পারেন। 

সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি অশোক ভূষণ, বিচারপতি সুভাষ রেড্ডি আর বিচারপতি এমআর শাহের বেঞ্চ পিএম কেয়ারস ফান্ডকে পুরোপুরি বৈধতা দিয়েছে।  বিরোধী এই ফান্ডের স্বচ্ছতা নিয়ে একাধিক প্রশ্ন তুললেও পিএম কেয়ারস ফান্ড নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকার তথা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ভাবমূর্তি আরও একবার উজ্বল রইল সুপ্রিম কোর্টের এই নির্দেশের ফলে। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ মোকাবিলা করতে গত ২৮ মার্চ প্রাইম মিনিস্টার্স সিটিজেন অ্যাসিস্ট্যান্স অ্যান্ড রিলিফ ইন ইমার্জেন্সি সিচুয়েশনস বা পিএম কেয়ারস ফান্ড গঠন করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এই ফান্ডের মূল উদ্দেশ্যই হল করোনভাইরাসের ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে আর্থিক সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়া। কিন্তু প্রথম থেকেই বিরোধীরা এই ফান্ডের যৌক্তিতকা নিয়ে প্রশ্ন তুলে আসছিলেন। 

বিজেপির সাঁড়াশি আক্রমণে রাহুল গান্ধী, 'হেরো' আর 'অযোগ্য রাজকুমার' তকমা বরাদ্দ হল ..

করোনা স্বাস্থ্য বিধিকে উড়িয়ে দিয়ে উহানে ওয়াটার পার্টি, মাস্ক নেই, নেই নিরাপদ দূরত্ব ...

আর এদিন সুপ্রিম কোর্টের রায় ঘোষণার পরই রাহুল গান্ধীকে নিশানা করে আসরে নামে বিজেপি। দলের জাতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ রাহুল গান্ধীর জন্য একটি আঘাত ছাড়া আর কিছুই নয় রীতিমত কটাক্ষের সুরে মন্তব্য করেন। পাশাপাশি বিরোধীদেরও তিনি নিশানা করে বলেছেন অন্যরা যাঁরা এই ফান্ডের বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন তাঁরাও সুপ্রিম কোর্টের রায় রীতিমত মর্মাহত। তারপরই জেপি নাড্ডা বলেন সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ রাহুল গান্ধীর নেতিবাচক নীতিকে ধাক্কা দিয়েছে। একই সঙ্গে তাঁর অনুগত কর্মীদেরও ধাক্কা দিয়েছে বলেও তিনি মন্তব্য করেন তিনি। কংগ্রেস ও তার সহযোগীদের অসৎ উদ্দেশ্য ও প্রচেষ্টা সাফল্যের মুখ দেখতে পায়নি। রাহুল গান্ধীকে দেশার সাধারণ মানুষ বারবার খারিজ করে দিয়েছে বলেও তিনি মন্তব্য করেন। 

বারামুল্লায় নিহত লস্কর প্রধান সাজ্জাদ, উপত্যকায় আবারও সাফল্য নিরাপত্তা বাহিনীর ...